সংবাদদাতা :
করোনাযোদ্ধা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সেবা তত্বাবধায়ক ইনসাফি হান্নার অসামান্য কাজের স্বীকৃতি দিয়েছে রোটারি ক্লাব অব ইন্টারন্যাশনাল ( রোটারী ডিস্ট্রিক্ট ৩২৮২)। গত ২৬ জুন চট্টগ্রাম নগরের পাঁচতারকা হোটেল র‌্যাডিসন ব্লুতে রোটারি ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের দুই দিনব্যাপী ডিস্ট্রিক কনভেনশনের অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে চমেকহার সেবা তত্ববধায়ক ইনসাফি হান্নাকে বিশেষ সম্মাননা তুলে দেন রোটারি ডিস্ট্রিক্ট গভর্নর ড. বেলাল উদ্দিন আহমেদ।

অনুষ্ঠানে গভর্নর ড. বেলাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘সবাই যখন বাসায় গৃহবন্ধী তখন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনা রোগীর সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করে অনন্য নজির স্থাপন করেছেন হান্না এবং সেবা করতে গিয়ে তিনিও করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এটি অনেক বড় একটি সাহসী সিদ্ধান্ত। নিজেকে রোগীর স্বার্থে বিসর্জন করার এমন সাহসী মানসিকতা কম মানুষেরই থাকে।

এমন কাজ অনেকের জন্য যেমন দৃষ্টান্ত, তেমনি এটি অনেকের মনে জোগাবে উৎসাহও। তার সময়োপযোগী সিদ্ধান্তের জন্য ও করোনার ক্রান্তিকালে অসামান্য অবদান রাখায় আমরা তাকে সম্মাননা জানাতে পেরে আনন্দিত।’

ইনসাফি হান্না বলেন, মানুষ মানুষের হৃদয়ে থাকে তার কর্মের মাধ্যম, সৃষ্টিশীল মানুষ তেমনি ইতিহাস হয়ে থাকে যুগে যুগে সকলের অন্তরে। কাজকে ভালোবেসে সঠিকভাবে সম্পাদন করলে যেমন মানুেষর মন পাওয়া যায় তেমনি মানুষের মন জয়ের মাধ্যমে আল্লাহ তায়ালাকে পাওয়া যায়। আমি কখনো এওয়ার্ড পাওয়ার জন্য কাজ করিনি, আমি সবসময় ভেবেছি আমি মানুষ, এই সমাজে আমার কিছু দায়বদ্ধতা আছে,যা-কিছু করেছি হাসপাতালের দায়িত্ব থেকেই। আমি শুকরিয়া জ্ঞাপন করছি মহান আল্লাহ প্রতি যিনি কাজ করার তৌফিক দিয়েছেন। আজকের আমার এই সম্মাননা “DG’S Special Recognition Exemplary Medical Service During Covid-19 award” এর জন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই চমেকহা সম্মানিত পরিচালক, ডেপুটি পরিচালক, সহকারী পরিচালক, সহ আমার সকল নার্সিং কর্মকর্তা বৃন্দকে যারা আমাকে সব সময়-ই সহযোগিতা করেছেন।আমি আরও ধন্যবাদ জানাই ডিসট্রিক্ট গর্ভনর ৩২৮২ (২০২০-২০২১) এবং রোটারীয়ান বৃন্দগনকে আমি ভিষণ কৃতজ্ঞ ও আনন্দিত। সৎ উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ করলে মানুষ যেমন ভালোবাসে তেমনি আল্লাহ সবকিছুতে হেফাজত করেন। সকলে দোয়া করবেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •