চকরিয়া সংবাদদাতা:
কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার সরকারী নির্দেশ আমন্য স্বস্থ্যবিধি না মেনে ও কঠোর লকডাউনের মধ্যেও বৃহত্তম ইলিশিায় বাজারে গরুর হাট বসিয়েছে মাতামহুরী সাংগঠিনিক থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা। দেশে সব কিছু অস্বাবিক হলেও ইলিশিয়ার গরু বাজার যেন স্বাভাবিক। এ নিয়ে এলাকার সাধারণ জনগন ও সচেতন নাগরিকের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও যুবলীগ নেতা এডভোকেট রবিউল এহেসান লিটন জানান, ইলিশিয়া দক্ষিণ চট্রগ্রামরে সর্ব বৃহত গরু বাজার হওয়ায় বিভিন্ন উপজেলা থেকে গরু নিয়ে এই বাজারে বিক্রি করার জন্য জমায়েত হয়। সেহেতু পুরো কক্সবাজার জেলায় করোনা ছড়ানোর আশংকা বিদ্যমান। তিনি আরো বলেন, সব কিছু বন্ধ রাখলে কি হবে, যদি গরু বাজারে হাজার হাজার মানুষ জমায়েত ও গরু-মহিষ এনে বিক্রি করে। তাহলে এসব লকডাউন দিয়ে কি কোন লাভ হবে?

ইলিশিয়া জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয় সভাপতি ও পশ্চিম বড় ভেওলা চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলার কাছ থেকে গরু বাজার বসানোর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রশাসনের সাথে কথা বলে বাজার বসানো হয়েছে।

ইলিশিয়া গরু বাজার বসানোর বিষয়ে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামশুল তাবরীজ এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, স্বাস্থ্য বিধি মেনে সরকারের ঘোষিত বিধি নিষেধে নিত্যপন্য সামগ্রীর নিয়মে বাজার বসানো যেতে পারে। তবে, স্বাস্থ্য বিধি না মানলে এবং অতিরিক্ত পরিমাণে লোক জমায়েত হলে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি পবিত্র কোরবানী উপলক্ষ্যে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে গরু বাজার বসানোর জন্য আলাদা অনুমতি নিতে হবে বলে জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •