নিজস্ব প্রতিবেদক :

কক্সবাজারের চকরিয়ায় দুইদিনের ভারী বর্ষণে ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কারপূর্বক জনগণের চলাচল নির্বিঘ্ন করতে তৎপর রয়েছেন কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম।

তিনি শনিবার (৩ জুলাই) বিকেলে সরজমিন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করতে যান উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের হারবাং-বারবাকিয়া সংযোগ সড়কটি। এ সময় এমপি জাফর আলম অতি বৃষ্টিতে লণ্ডভণ্ড হয়ে যাওয়া সড়কসহ বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শন করেন। এ সময় সংশ্লিষ্টদের তাৎক্ষণিক কাজ শুরু করতে নির্দেশনা প্রদান করেন এমপি জাফর আলম।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন হারবাং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মিরানুল ইসলাম মিরান, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা বাদশা মিয়া, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেহরাজ উদ্দিন মিরাজ, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক লিটন, এমপির ব্যক্তিগত সহকারী আমিন চৌধুরী প্রমূখ। এদিকে এমপি জাফর আলম শনিবার দুপুরে অংশগ্রহণ করেন খুটাখালী ইউনিয়নের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ও বিশিষ্ট সমাজসেবক মো. নাজের এর নামাজে জানাজায়।

এর আগে সকালে চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে চকরিয়ায় ৬০০ প্রান্তিক কৃষকের মাঝে প্রণোদনা হিসেবে আমন চাষের জন্য প্রতি বিঘা জমির বিপরীতে পাঁচ কেজি করে উফসি জাতের ধান বীজ, ১০ কেজি করে ডাই অ্যামোনিয়া ফসফেট (ডিএপি) সার ও ১০ কেজি করে পটাশ সার বিতরণ করেন এমপি জাফর আলম। একইসাথে বিতরণ করা হয়েছে দুই কেজি হাইব্রিড জাতের ধান বীজ, ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি করে পটাশ।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর কর্তৃক শনিবার দুপুরে চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে উপকারভোগী এসব কৃষকের মাঝে খরিপ-২/ ২০২০-২১ অর্থ বছরে হাইব্রিড ও উফসি আমন প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় কৃষকদের মাঝে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে সার ও বীজ বিতরন করা হয়।

কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর আলম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এসব কৃষি প্রণোদনা তুলে দেন উপকারভোগী কৃষকের হাতে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মুকসুদুল হক ছুট্টু, ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন হক জেসি চৌধুরী, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এসএম নাসিম হোসেন, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা নাজমুল হোসেন, পেকুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম প্রমূখ।

এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি জাফর আলম বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে সারের জন্য কৃষককে কোন রকম কষ্ট পেতে হচ্ছে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার কৃষক বান্ধব ও কৃষকদরদী সরকার। তাঁর নেতৃত্বে বর্তমান সরকার দেশে সার ব্যবস্থাপনায় সুশাসন প্রতিষ্ঠা করেছে। সরকার একদিকে যেমন সারের পর্যাপ্ত সরবরাহ নিশ্চিত করছে, অন্যদিকে চার দফায় সারের দামও অনেক কমিয়ে কৃষকের ক্রয় মতার মধ্যে এনে দিয়েছে। এখন কৃষি উৎপাদনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ এই সারের জন্য কৃষককে এখন কোন রকম কষ্ট করতে হয় না।

এমপি জাফর বলেন, অথচ এই সার ব্যবস্থাপনায় বিএনপি মতায় থাকাকালে চরমভাবে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছিল। তখন সারের জন্য কৃষককে দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হয়েছিল। সারের দাবীতে কৃষকদেরকে আন্দোলন করতে হয়েছিল, এমনকি কৃষকদের প্রাণ দিতেও হয়েছিল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •