সিবিএন ডেস্ক:
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) সকাল ৬টা থেকে আগামী বুধবার (৭ জুলাই ) মধ্যরাত পর্যন্ত সাত দিনের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। লকডাউনকালে সাধারণ মানুষের চলাচলের ক্ষেত্রে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার।

সরকারি আদেশে বলা হয়েছে, ‘সব সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস যেহেতু বন্ধ থাকবে, সেহেতু অফিসে যাওয়া যাবে না। সড়কে যন্ত্রচালিত যানবাহন চালানো যাবে না। রেল ও নৌ-পথে গণপরিবহন (অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটসহ) ও কোনও ধরনের স্বচালিত যানবাহন চালানো যাবে না। শপিং মল, মার্কেটসহ দোকানপাট খোলা যাবে না। কোনও ধরনের পর্যটন কেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্রে যাওয়া যাবে না। এগুলো বন্ধ থাকবে।’

আদেশে আরও বলা হয়, ‘কোনও প্রকার জনসমাবেশ করা যাবে না। বিবাহোত্তর অনুষ্ঠান, জন্মদিন, পিকনিক, পার্টিসহ রাজনৈতিক ও ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান করা যাবে না। এসব অনুষ্ঠান বন্ধ রাখতে হবে।’

উল্লেখ্য, গত সোমবার (২৮ জুন) থেকে সারাদেশে সীমিত পরিসরে লকডাউন চলছে। বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) থেকে সেটি কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করতে এবার মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী। অপরদিকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ বলছে, ‘লকডাউন’ বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসক স্থানীয় সেনা কমান্ডারের সঙ্গে যোগাযোগ করে সেনা টহল নিশ্চিত করবেন এবং সেভাবেই পুলিশ, বিজিবি ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা যৌথভাবে দায়িত্ব পালন করবেন।

রাজধানী ঢাকার সাতটি কেন্দ্রে বৃহস্পতিবার থেকে ফাইজারের টিকাদান কর্মসূচি শুরু হচ্ছে। বুধবার (৩০ জুন) স্বাস্থ্য অধিদফতর আয়োজিত ভার্চুয়াল বুলেটিনে অংশ নিয়ে এ তথ্য জানান ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সদস্য সচিব ডা. শামসুল হক।

বুধবার (৩০ জুন) দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম এক সংবাদ সম্মেলনে ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচলের বিষয়ে বিধি-নিষেধ উল্লেখ করে বলেন, ‘মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য কাচাবাজার, রোগীদের ওষুধ কেনা, কোভিডের টিকা নিতে যাওয়া, কোভিডের টেস্ট করাতে যাওয়া— এসব ক্ষেত্রে কোভিডের মেসেজ দেখিয়ে ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে বাইরে বের হতে পারবেন।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •