সিবিএন ডেস্ক:

কিশোরদের সৃজনশীলতার বিকাশে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ এই বছর সম্মানজনক ডায়ানা অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হলেন বাংলাদেশি তরুণ ইউসুফ মুন্না। তার প্রতিষ্ঠিত কিশোরভিত্তিক সৃজনশীল প্ল্যাটফর্ম রিফ্লেকটিভ টিনস’-এর (Reflective Teens) মাধ্যমে সামাজিক পরিবর্তনমূলক বিভিন্ন কার্যক্রমের জন্য তাকে এই স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।

ইউসুফ মুন্নার বাড়ি মহেশখালী উপেজলার মাতারবাড়িতে।

যুক্তরাজ্যের সাবেক প্রিন্সেস ডায়ানা’র নামে তার দুই ছেলে প্রিন্স হ্যারি ও প্রিন্স উইলিয়াম ব্রিটিশ রাজপরিবারের পক্ষে এই পুরস্কারটি প্রবর্তন করেন। ইউসুফকে এই পুরস্কার দেওয়ার কারণ হিসেবে সংস্থাটি বলেছে, তার প্রতিষ্ঠান রিফ্লেকটিভ টিনস বিগত আট বছর ধরে চট্টগ্রাম, খুলনা ও ঢাকাসহ বাংলাদেশের নানা প্রান্তের ৪৭ হাজারেরও বেশি কিশোরের সৃজনশীল প্রতিভার বিকাশ এবং বিভিন্ন সৃষ্টিশীল কাজে সম্পৃক্ত করতে পেরেছে। তাদের প্রোগ্রামগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ব্রিজেস নট বরডার্স, ব্রেইনারি এবং ক্রিয়েটর্স কনভারজেন্স।

উল্লেখ্য, তাকে এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত করেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক অলাভজনক সংস্থা Ashoka: Innovators for the Public।

এক বিবৃতিতে ইউসুফ বলেন, এই প্রাপ্তি আমাদের জন্য অনেক বড় অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে। একইসঙ্গে, আমাদের কাজের গণ্ডিকে প্রসারিত করতে ও সামগ্রিক লক্ষ্যকে বাস্তবায়নে দলগত প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। এই পুরস্কার আমার একার নয়। রিফ্লেকটিভ টিনসের সঙ্গে সংযুক্ত সবাই এর অংশীদার বলে আমি বিশ্বাস করি।

তিনি আরও বলেন, আমার মা-বাবা সবসময় আমার উপর আস্থা রেখেছেন, উৎসাহ জুগিয়েছেন। তাই তাদের এই পুরস্কারটি উৎসর্গ করছি।

ইউসুফ মুন্না বর্তমানে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগে স্নাতক করছেন। তিনি ২০১৫ সালে TEDx এ বক্তা হিসেবে আমন্ত্রিত হন। এছাড়াও ২০১৭ সালে প্রভাবশালী সামাজিক উদ্যোক্তাদের বৈশ্বিক নেটওয়ার্ক অশোকা ইয়াং চেঞ্জমেকারের অন্তর্ভুক্ত হন ইউসুফ। একই বছর নেপালে অনুষ্ঠিত গ্লোকাল ইন্টারন্যাশনাল টিন কনফারেন্সেও আলোচক হিসেবে আমন্ত্রিত হয়েছিলেন তিনি। এছাড়া ভারতে অনুষ্ঠিত গ্লোবাল পার্টনারশিপ সামিট’ ১৭ ও ২০১৮ সালে ফিলিপিন্সে অনুষ্ঠিত অশোকা চেঞ্জমেকার এক্সচেঞ্জে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ইউসুফ দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন।

বর্তমানে, রিফ্লেকটিভ টিনসের পাশাপাশি, বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি প্রক্রিয়ায় ছাত্রছাত্রীদের সহশিক্ষামূলক কার্যক্রমকে মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রক্রিয়াটিকে আরও অন্তর্ভুক্তিমূলক করার জন্য countECA নামের একটি ভার্চুয়াল মুভমেন্ট শুরু করেছেন ইউসুফ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •