ফেসবুক কর্ণার:
ছোট বেলায় আমাদের গ্রামে চৌকিদার দফাদারদের দেখতাম লুংগি পরিহিত। তাদের পায়ে স্যান্ডেল দেখিনি। হাতে থাকত একটি ছাতা। তাও নিজের ব্যবহারের জন্য নয়। চেয়ারম্যান মেম্বার সাহেবদের মাথার উপর ছাতাটি ধরা হত।
## সেই চৌকিদার দফাদার এখন হয়েছেন গ্রাম পুলিশ। তারা সবাই এখন জুতা স্যান্ডেল, সরকারের নির্ধারিত ইউনিফর্ম শার্ট প্যান্ট পরিহিত।
## সত্যি দেখে দেশের গ্রাম নিয়ে গর্বিত হই। আমাদের শৈশবে গ্রামে রাস্তা ছিল না। এজন্য আমরাও প্যান্ট পরে কোনদিন স্কুলে যেতে পারিনি। আহা শহরের প্যান্ট পরিহিত বন্ধুদের দেখে কতইনা আফসোস করতাম পুড়া কপাল নিয়ে কেন গ্রামে জন্ম নিলাম।
## আজ আমাদের গাঁও গেরামের মানুষের দুঃখে সুখে যারা সার্বক্ষণিক জড়িয়ে থাকেন সেই সব মানুষ গুলোর (গ্রাম পুলিশ) হাতে বাইসাইকেল দেখে সত্যিই মনে শান্তি পাচ্ছি।
## আমাদের গ্রামে এখন রাস্তা হয়েছে। সেই রাস্তায় টুনু চৌকিদার বাইসাইকেলে ওই যে যাচ্ছে। ত্রিশ লাখ শহীদের রক্তের লাল সবুজের দেশটি আজ সেই পর্যায়ে পৌঁছে গেছে।
নোটঃ কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার ৫ টি ইউনিয়নের ৪৯ জন গ্রাম পুলিশের কাছে সরকারের দেওয়া বাইসাইকেল হস্তান্তর করেন ইউএনও নিজাম উদ্দিন আহমেদ।

Tofayel Ahmad -এর ফেসবুক টাইমলাইন থেকে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •