বিশেষ প্রতিবেদক:
কক্সবাজারের চকরিয়ার বহু অপকর্মের হুতা, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতির উপর হামলাকারী, আলোচিত সন্ত্রাসী মার্শাল বাহিনীর প্রধান ইয়াসিন আরাফাত মার্শাল (৩০) অবশেষে পুলিশের জালে বন্দি হয়েছেন। ২৮ জুন সোমবার রাত ১১টার দিকে চকরিয়া পৌরশহরের সমিতি মার্কেট এলাকার একটি আবাসিক হোটেল থেকে তাকে গ্রেপ্তার কওে চকরিয়া থানা পুলিশের একটি দল।
গ্রেপ্তারকৃত ইয়াসিন আরাফাত মার্শাল চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের পুকপুকুরিয়ার এলাকার রুহুল কাদেলের ছেলে।
চকরিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সরওয়ার জাহান জানান,, দীর্ঘদিন ধরে সন্ত্রাসী মার্শালকে পুলিশ খোঁজ ছিলো। সোমবার রাতে চকরিয়া পৌরশহরের একটি আবাসিক হোটেলে মার্শাল রুম ভাড়া নিয়েছে বলে আমাদের কাছে খবর আছে। এই খবর পাওয়ার পর সাথে সাথে অভিযান চালায় ওই হোটেলে। পরে তাকে গ্রেপ্তার করি।
ঈুলিশ জানায়, গ্রেফতারকৃত মার্শাল চকরিয়া এলাকায় একটি সন্ত্রাসী মার্শাল বাহিনী করে ,জমি দখল,চাদাঁবাজী,অপহরন,চিনতাই,সহ নানা প্রকার অপরাধ কওে আসছে। তার রয়েছে একটি বাহিনী। সে একজন চিহিৃত সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে ছোট শিশুদের ধরে এনে বলৎকার অতপর জিম্মি করে টাকা আদায়ের অভিযোগ রয়েছে। সাবমেরিন ক্যাবলের একজন অফিসার কে অপহরণ, মারামারি, চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মারুপের উপর হামলা ঘটনা সহ আরো বেশ কয়েকটি অভিযোগে মামলা রয়েছে।
গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, ইয়াসিন আরাফাত মার্শালকে সকালে আদালতে পাঠানো হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলার তথ্য পেয়েছি। এসব ছাড়াও আর কোন মামলা আছে কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তার বাহিনীর অন্য সদস্যদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান পিপিএম বলেন, কোন সন্ত্রাসী বাহিনীর স্থান কক্সবাজারে হবে না। কক্সবাজার জেলা কে সন্ত্রাস মুক্ত করতে তিনি সকলের সহযোগীতা কামনা করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •