শাহেদুল ইসলাম মনির, কুতুবদিয়া :

কুতুবদিয়ায় ওয়ালিত ফয়সাল (২৫) নামের এক এনজিও কর্মী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। সে চুয়াডাঙ্গার জেলার জীবন নগর উপজেলার উতলী, মারগুমারি এলাকার সোনা মিয়ার পুত্র৷

মঙ্গলবার (২৯ জুন) আনুমানিক সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলা মেডিকেলের পশ্চিম গেইটের সামনে মো. মীর কাসেমের ভাড়া বাসায় “রূপীয়া নিবাসে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ফয়সাল রিসোর্স ইন্টিগ্রেশন সেন্টার (রিক) প্রজেক্ট ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে গত ৫ জুন কুতুবদিয়ায় যোগদান করেছে।

রুমমেট সিরাজুল মোস্তফা বলেন, প্রতিদিনের ন্যায় ৯টায় অফিসে যায়। তাকে অফিসে যাওয়ার জন্য ডাকলে যাওয়ার কথা বলে। কিন্তু সকাল ১০টায় ফয়সাল অফিসে না যাওয়াতে আবারও বাসায় এসে তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে অফিস কর্মী সাজ্জাদকে ডাকি।

তিনি আরও জানান, রাত ১১টার দিকে বাসার বাইরে গিয়ে ফোনে কান্নাকাটি করে কথা বলছিল বলে জানান তিনি ।

ফয়সালের চাচা বিপ্লব জানান, সোনা মিয়ার একমাত্র পুত্র ওয়ালিত ফয়সাল। তিনি আত্মহত্যা করার মতো কোন কারণ নেই। তবে ধারণা করা হচ্ছে তার স্ত্রীর সাথে ইদানীং মনমালিন্য হওয়ায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানান।

কুতুবদিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর হায়দার জানান, খবর পেয়ে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নিহতের লাশ ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় এবং ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান তার শরীরে আঘাতের কোন চিহ্ন নেই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •