সিবিএন ডেস্ক: কানাডার সাসকাচেওয়ান প্রদেশে পূর্বেকার একটি আবাসিক আদিবাসী স্কুলে সাড়ে সাতশ’র বেশি অচিহ্নিত কবর শনাক্ত হয়েছে। এটিকে দেশটির ইতিহাসে সবচেয়ে ‘উল্লেখযোগ্য আবিষ্কার’ হিসেবে উল্লেখ করেছে কাউয়েসেস ফার্স্ট ন্যাশন নামে একটি স্থানীয় আদিবাসী সংগঠন।

এ ঘটনার মাত্র কয়েক সপ্তাহ আগেই ব্রিটিশ কলম্বিয়ায় একই ধরনের একটি স্কুলে ২১৫টি শিশুর দেহাবশেষ খুঁজে পাওয়া গিয়েছিল।

কাউয়েসেস প্রধান ক্যাডমাস ডেলোরমে বলেছেন, এগুলো কোনো গণকবর নয়। এগুলো মূলত নাম-নিশানাবিহীন কবর।

jagonews24

বিবিসির খবর অনুসারে, ম্যারিয়েভাল ইন্ডিয়ান রেসিডেন্সিয়াল স্কুল ১৮৯৯ থেকে ১৯৯৭ সাল পর্যন্ত চালু ছিল। রোমান ক্যাথলিক চার্চ এটি পরিচালনা করত। সেসময় এ ধরনের অন্তত ১৩০টি বোর্ডিং স্কুল চালু করেছিল কানাডা সরকার। আদিবাসীদের অঙ্গীভূত করার লক্ষ্যে ধর্মীয় সংগঠন দিয়ে চালানো হতো সেগুলো।

ধারণা করা হয়, ওইসব আবাসিক স্কুলে ছয় হাজারের বেশি শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছিল। এর জন্য সেখানকার অস্বাস্থ্যকর পরিবেশকে দায়ী করা হয়। এছাড়া, শারীরিক ও যৌন নির্যাতনের কারণে অনেক শিক্ষার্থীই পালিয়ে গিয়েছিল।

গত মাসে বিশেষ ধরনের রাডার ব্যবহার করে অচিহ্নিত কবর খোঁজা শুরু করে কাউয়েসেস। গত বৃহস্পতিবার তারা প্রধম ধাপে অনুসন্ধানের ফলাফল ঘোষণা করেছে।

jagonews24

ডেলোরমে জানিয়েছেন, কোনো একসময় হয়তো এসব কবরের ওপর চিহ্ন ছিল, কিন্তু রোমান ক্যাথলিক চার্চ সেগুলো সরিয়ে ফেলতে পারে। ঘটনা তদন্তে চার্চ কর্তৃপক্ষ তাদের সহযোগিতা করবে বলে আশাবাদী কাউয়েসেস।

এক বিবৃতিতে কানাডীয় প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেছেন, তিনি সাসকাচেওয়ানে আবিষ্কার নিয়ে গভীরভাবে দুঃখিত। তার মতে, আদিবাসীরা যে পদ্ধতিগত বর্ণবাদ, বৈষম্য ও অন্যায়ের শিকার হয়েছিল, এগুলো তারই লজ্জাজনক স্মৃতি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •