আবদুল মজিদ, চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ায় পূর্বশত্রুতার জেরধরে বাগানের ফলনকৃত সাড়ে ৪শত পেঁপে গাছ কেটে দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এতে বাগান মালিকের অন্তত ৫লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে। উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ ঘুনিয়া গ্রামে ২০জুন ভোর সকাল সাড়ে ৫ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এঘটনায় জড়িত মৃত এরফান আলীর পুত্র মোঃ ইলিয়াছকে আটক করেছে চকরিয়া থানা পুলিশ।

এনিয়ে বাগান মালিক ওই গ্রামের নজু মিয়ার পুত্র নুরুল আমিন (৪৮) বাদী হয়ে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে লিখিত দায়ের করেন। এতে অভিযুক্ত করা হয়েছে- একই এলাকার মৃত এরফান আলীর পুত্র মোঃ ইলিয়াছ (৪৫), তার ছেলে বেলাল উদ্দিন (২২) ও আরফাত (১৮)সহ অজ্ঞাত আরো ৪/৫ জনকে।

বাদীর অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ ঘুনিয়া গ্রামে ৪০ শতক জমিতে প্রায় ৫০০টি পেঁপে গাছের চারা রোপন করে পেঁপে বাগান সৃজনসহ চাষাবাদ করছেন কৃষক নুরুল আমিন। বর্তমানে প্রত্যেকটি গাছে ঝাকে ঝাকে প্রচুর পরিমাণ পেঁপে ধরেছে এবং রং ধরে বাজারজাত করার উপযোগী হয়েছে। অভিযুক্তরা উক্ত পেঁপে বাগানের প্রতি ঈর্ষান্বিত হয়ে প্রায় সময় বাগানের ক্ষতিসাধনের লক্ষ্যে গৃহপালিত গরু লেলিয়ে দিয়ে চারা গাছ নষ্ট করে আসছিল। সর্বশেষ ২০জুন’২১ইং ভোর সকাল সাড়ে ৫ ঘটিকার সময় অভিযুক্তরা আরও ৪/৫ জন ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে পুর্ব পরিকল্পিতভাবে হাতে দা, কিরিচ ইত্যাদি ধারালো অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ফলনকৃত পেঁপে বাগানের প্রায় ৪৫০টি গাছ নির্বিচারে কেটে মাটির সাথে বিলিন করে ফেলে। ঘটনার বিষয়ে খবর পেয়ে বাগান মালিকসহ স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে পেঁপে গাছ কর্তন অবস্থায় উল্টো হুমকি দিয়ে চলে যায়।

পেঁপে বাগান মালিক কৃষক নুরুল আমিন অভিযোগ করেন, তার বাগানের ৪৫০টি গাছ কর্তনে অন্তত ৫লক্ষাধিক টাকার উপরে ক্ষতি হয়েছে। ইতিপুর্বেও অভিযুক্তরা তার সামাজিক বনায়নের বেলজিয়া গাছ, পেয়ারা গাছ, লেবু গাছ সহ প্রজাতির গাছ কেটে ক্ষতিসাধন করে। ওই বিষয়ে স্থানীয় ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদে বিচারাধীন রয়েছে।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •