মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কলেজছাত্রীর সাথে প্রেমের অভিনয় করে আপত্তিকর স্থিরচিত্র ও ভিডিও ধারণ করে শারিরিক সম্পর্ককারী মোঃ নাঈম উদ্দিন (২২) নামক এক প্রতারককে চকরিয়া থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। বৃহস্পতিবার ১৭ জুন রাত ৮ টার দিকে চকরিয়ার বরইতলী ইউনিয়নের বানিয়াছড়া এলাকায় এক অভিযান চালিয়ে উক্ত প্রতারককে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রতারক মোঃ নাঈম উদ্দিনের কাছ থেকে আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও সম্বলিত একটি স্মার্টফোনও জব্দ করেছে পুলিশ।

কক্সবাজার জেলা পুলিশ জানিয়েছে, রিপা আক্তার (১৮) (ছন্মনাম) কক্সবাজারের চকরিয়ার একটি কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী। তিন বছর পূর্বে বান্দরবান জেলার লামা কেদারবাদ গ্রামের মৃত নাছির উদ্দিন এর ছেলে মোঃ নাঈম উদ্দিন এর সাথে রিপা আক্তার এর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেমের সম্পর্কের সুবাধে নাঈমের সাথে রিপার মোবাইল ফোনে কথাবার্তা হতো। একসময় প্রেমিক নাঈম রিপাকে ফাঁদে ফেলে আপত্তিরকর কিছু মোবাইল স্ক্রীশট ও মোবাইল স্ক্রীন ভিডিও ধারন করে। ২০২০ সালের ৬ সেপ্টেম্বর নাঈম বান্দারবন এর লামা থেকে চকরিয়া আসে এবং রিপার শোবার ঘরে ঢুকে। রাতে রিপাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার তাকে ধর্ষণ করে এবং ধর্ষনের চিত্র তার ব্যক্তিগত মোবাইলে রেকর্ড করে রাখে। এর পর থেকে নাঈমকে রিপা কল করলে নাঈম আর কল রিসিভ করে না। এক পর্যায়ে কল রিসিভ করলেও নাঈম রিপাকে তার মোবাইলে কল দিতে নিষেধ করে এবং কল দিলে তার ও রিপার আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও অনলাইনে ভাইরাল করে দিবে বলে হুমকি দেয়। গত ২২ ফেব্রুয়ারী নাঈম “রিপা আক্তার“ (ছদ্ম নাম) নামে একটি ফেইক ফেইসবুক আইডি খুলে রিপার আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করে। যা ভাইরাল হয়ে যায়। রিপার মা বিষয়টি জানতে পেরে চকরিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। চকরিয়া থানা পুলিশ অভিযোগটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ও পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হিসাবে রুজু করে। এর পরপরই শুরু হয় এজাহারভুক্ত আসামী নাঈমকে গ্রেফতারে অভিযান। বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্ত প্রতারক প্রেমিক মোঃ নাইম উদ্দিনকে চকরিয়া থানা পুলিশ গ্রেপ্তারে সক্ষম হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •