চট্টগ্রাম সংবাদদাতা:
কর্ণফুলীতে ক্রিস্টাল মেথ বা আইস নামক নতুন মাদকসহ মো. সাগর (২৩) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে।

বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার সময় উপজেলার মইজ্জ্যারটেক এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।এসময় পুলিশ তার কাছ থেকে ০৫ গ্রাম আইস উদ্ধার করেছেন।

কর্ণফুলী থানার ওসি মো. দুলাল মাহমুদ বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেপ্তার মো. সাগর (২৩) বান্দরবান পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বড়ুয়ার টেকের রানীর চরের মৃত মোহাম্মদ হোসেনের পুত্র। উদ্ধার মাদকের এর আনুমানিক দাম ৭৫ হাজার টাকা বলে ধারণা করছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, বুধবার রাতে আইস নিয়ে চট্টগ্রাম শহরে প্রবেশের আগে কর্ণফুলী পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন মো. সাগর।

বিশেষজ্ঞরা জানান, ‘আইস’ লবণের মতো দানাদার জাতীয় মাদক। দেখতে কখনো চিনির মতো, কখনো মিছরির মতো। আইস উচ্চমাত্রার মাদক, যা সেবনের পর মানবদেহে দ্রুত উত্তেজনার সৃষ্টি করে।

কর্ণফুলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দুলাল মাহমুদ বলেন, আইসসহ গ্রেপ্তার ব্যক্তিকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দিয়ে জেলহাজতে পাঠানো হবে।’

চট্টগ্রাম মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সূত্র বলছে, ইয়াবায় এমফিটামিন থাকে পাঁচ ভাগ আর ক্রিস্টাল মেথ বা আইসের পুরোটাই এমফিটামিন। তাই এটি ইয়াবার চেয়ে অনেকগুণ বেশি ক্ষতিকর মাদক। ইয়াবার চেয়ে অনেক বেশি পরিমাণ প্রতিক্রিয়া তৈরি করে মানবদেহে। ইয়াবা বা হেরোইন হল ওপিয়ামের বাইপ্রডাক্ট। এগুলো থেকেই প্রসেস করে এখন নতুন নতুন মাদক তৈরি হচ্ছে। আইসও এমন একটি নতুন মাদক।”

যা মিয়ানমার ও ভারতের বাইরে থেকেও কিছু লোক এর বিস্তারে কাজ করছে। আফ্রিকান অঞ্চলে এর নেটওয়ার্ক আছে।

গবেষক এমদাদুল হক বলছেন, এটা ইয়াবার মতোই সহজে বহনযোগ্য, তবে ইয়াবার চেয়ে বেশিগুণ ক্ষতিকর শরীরের জন্য।

তিনি বলছেন, ক্রিস্টাল মেথ বা আইস সেবন করলে কারও স্ট্রোক হতে পারে। হার্ট অ্যাটাক হতে পারে। মানসিক অবসাদ বা বিষণ্ণতার কারণে আত্মহত্যার প্রবণতা তৈরি হতে পারে। আরও অন্যান্য ঝুঁকি তো আছেই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •