বার্তা পরিবেশক:

কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ঈদগড় রেঞ্জধীন সদর ঈদগড় বিটের ২০১৭-২০১৮ সনের ২৫ হেক্টর উডলট (২য় আবর্তের) সামাজিক বনায়নের জনৈক উপকারভোগী ফেরদৌস কর্তৃক বাগানের চারা গাছ ও পাহাড় কেটে জবর দখল করে বাড়ীঘর নির্মান ও পুরাতন মাদার ট্রি জামগাছ কেটে পাচারের জন্য মজুদ করে রেখেছে বলে দাবী করেছেন বনায়ন রক্ষনাবেক্ষন কমিটির সভাপতি জসিম উদদীন।

তিনি জানান, আমি সামাজিক বনায়ন রক্ষণাবেক্ষণ কমিটির সভাপতি ও ২ নং গ্রুপের ১০ নম্বর সদস্য হই।একই সামাজিক বনায়নের ৪ নং গ্রুপের ১১ নম্বর সদস্য মোঃ ফেরদৌস একজন উপকারভোগী হয়েও ১ম আবর্ত হইতে পর্যায়ক্রমে সামাজিক বনায়নের চারা গাছ ও পাহাড় কেটে জবর দখলের কাজ অব্যাহত ভাবে চালিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানেও সামাজিক বনায়নের চারা গাছ বাগানের মাদার ট্রি জাম গাছ ও বিশাল পাহাড় কেটে জবর দখলের আয়তন বৃদ্ধি করছে । জবর দখল করে নির্মানকৃত তার বাড়ীর উঠানের এখন ও বিক্রির জন্য মজুদ করে রেখেছে মাদার ট্রি জাম গাছের বিশাল বিশাল লক এবং নস্ট করা চারা গাছের গোড়ালী স্বাক্ষী হিসাবে পড়ে আছে।

সভাপতি জসিম উদ্দিন আরো জানান বিষয়টি ঈদগড় বিটের কর্মকর্তাকে মৌখিক ভাবে বার বার জানানোর পর ও রহস্যজনক কারনে ব্যবস্তা গ্রহন না করায় আমি গত ৫ জুন চট্রগ্রাম সিএফ মহোদয় ও কক্সবাজার বিভাগীয় বন কর্মকর্তা উত্তর বরাবর লিখিত ভাবে অভিযোগ করেছি। মোঃ ফেরদৌসের বিরুদ্ধে অভিযোগ করার অপরাধে আমাকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি ও প্রাণ নাশের হুমকি দিচ্ছে। আমি নিরাপত্তা ও জবরদখলকৃত সামাজিক বনায়নের বাগান রক্ষায় কর্তৃপক্ষের  হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •