ইমাম খাইর, সিবিএন:

চকরিয়া উপজেলার খুটাখালীতে পানির সাথে নেশাজাতীয় দ্রব্য পান করিয়ে ১২ বছরের শিশু ধর্ষণের ঘটনার সহযোগী হিসেবে অভিযুক্ত রোকসানা আক্তারকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

রবিবার (১৩ জুন) দিবাগত রাত ১১টার দিকে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী।

তিনি জানান, গত ২ জুন খুটাখালী ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডস্থ গর্জনতলী এলাকায় পানির সাথে নেশাজাতীয় দ্রব্য পান করিয়ে ১২ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনার সাথে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে অভিযান অব্যাহত রাখে র‌্যাব।

পরবর্তীতে জানা যায়, রোকসানা আক্তার বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার কথা বলে তারই প্রতিবেশী ১২ বছরের একটি শিশুকে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। বাড়িতে নিয়ে শিশুটিকে খাবার খেতে দেয় এবং পানিতে নেশা জাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে তাকে পানি পান করায়।  শিশুটি অচেতন হয়ে পড়লে তাকে পাশের রুমে নিয়ে শুইয়ে রাখে। এরপর পরিকল্পনা অনুসারে ইউনুস নামের ব্যক্তিকে খবর দেয়। সে রোকসানার সহায়তায় শিশুটিকে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে শিশুটি অজ্ঞান হয়ে যায়। এরপর তারা শিশুটিকে বাড়িতে পৌঁছিয়ে দেয়।

আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী জানান, শিশুটির অজ্ঞান হওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তারা সদুত্তর দিতে ব্যর্থ হয়। ভিকটিম শিশুটিকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটি ধর্ষিত হয়েছে জানায় এবং চিকিৎসা প্রদান করে। ঘটনার পর থেকে সত্যতা যাচাইপূর্বক অক্লান্ত অভিযান পরিচালনা করে সহযোগী রোকসানা আক্তারকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় র‌্যাব।

পলাতক আসামী ইউনুসকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে জানান র‌্যাব-১৫এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া এন্ড অপারেশনস্) আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •