সংবাদদাতা:

কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর আলম এবং পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম লিটু স্বপদে বহাল রয়েছেন। তাদের অব্যাহতি দেয়ার এখতিয়ার কেবলমাত্র কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের, বিধায় তারা আগের পদেই থাকছেন।

বিষয়টি জানিয়েছেন এমপি জাফর আলমের একান্ত সহকারী এডভোকেট আমিন চৌধুরী।

তিনি জানান, কোন সংসদ সদস্য, উপজেলার পদের কাউকে অব্যাহতি দেয়ার কোন এখতিয়ার জেলা আওয়ামী লীগের নেই। সুতরাং জেলা আওয়ামী লীগ কর্তৃক প্রচারিত অব্যাহতির আদেশ অগঠনতান্ত্রিক।

এডভোকেট আমিন চৌধুরী বলেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নির্দেশনা হলো আগামী ১৭ জুন চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী একটি কর্মী সভা আহ্বান করবেন। সেখানে সভাপতিত্ব করবেন চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর আলম এমপি। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন কেন্দ্রীয় ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা। বিশেষ অতিথি থাকবেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

এ বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক এম.এ মঞ্জুর বলেন, এমপি জাফর আলমের অব্যাহতির আদেশ প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। আচরণের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। সেই সঙ্গে চকরিয়া পৌরসভায় দলীয় প্রার্থীকে বিজয়ী করতে এমপিসহ সবাইকে একযোগে কাজ করতে বলেছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, গত ১০ জুন জেলা আওয়ামী লীগের জরুরী সভায় এমপি জাফর আলমকে বহিস্কারের সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মুজিবুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত ওই দিনের জরুরী সভায় বলা হয়, গত ৮ জুন চকরিয়া পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দিন চৌধুরী ও চকরিয়া পৌরসভার নৌকার মনোনীত মেয়র প্রার্থী বর্তমান মেয়র আলমগীর চৌধুরী উপর হামলা ও দলীয় সিদ্ধান্ত ভঙ্গের কারণে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।