সিবিএন ডেস্ক:
করোনাভাইরাসের মহামারির মধ্যে এবারও বাইরের কোনো দেশ থেকে সৌদি আরবে পবিত্র হজ পালন করতে যেতে পারবেন না মুসল্লিরা। ফলে বাংলাদেশিরাও এবার হজ পালন করতে পারছেন না।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান আজ শনিবার বলেন, ‘সৌদি আরব সরকার জানিয়েছে, করোনা মহামারি পরিস্থিতি বিবেচনায় এ বছরও (১৪৪২ হিজরি, ইংরেজি ২০২১ খ্রিস্টাব্দ) সৌদি আরবের বাইরের কোনো দেশ থেকে যাত্রীরা হজের সুযোগ পাবেন না।’

‘সৌদি আরবের নাগরিক এবং সৌদি আরবে অবস্থানকারী অন্যান্য দেশের মুসলিমদের নিয়ে সীমিত আকারে হজ পালিত হবে’, সচিবালয় থেকে ভিডিওবার্তায় যোগ করেন প্রতিমন্ত্রী।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে গত বছরও ‘সীমিত পরিসরে’ হজ অনুষ্ঠিত হয়। গত বছরও বাংলাদেশ থেকে কেউ সৌদি আরবে গিয়ে হজ করার সুযোগ পাননি। স্বাভাবিক সময়ে প্রতিবছর বাংলাদেশ থেকে হজ পালনে সৌদি আরব যেতে পারেন সোয়া লাখেরও বেশি বাংলাদেশি।

প্রতিবছর হজে কয়েক লাখ মানুষ সৌদি আরবের মক্কা নগরীতে জমায়েত হন। এই বিপুল সংখ্যক মানুষের সমাগম বর্তমান করোনাভাইরাসের পরিপ্রেক্ষিতে অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। এই বিবেচনায় সৌদি সরকার ‘সীমিত পরিসরে’ হজ পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এ বছরও হজ পালনের আশায় দেশে ৬০ হাজার মানুষ প্রাক-নিবন্ধন করেছিলেন।

গতকাল শুক্রবার ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান এনটিভিকে বলেছিলেন, কেউ চাইলে নিবন্ধনের টাকা উঠিয়ে নিতে পারেন।

‘টাকা যদি কেউ উঠিয়ে নিতে চায় সেটা তাঁর ব্যক্তিগত বিষয়। দিচ্ছেও। যারা উঠিয়ে নিতে চাচ্ছেন তাদের দিচ্ছেও। কেউ আংশিক উঠিয়ে নিচ্ছে তাঁর বিপদের জন্য। তাঁর সিরিয়ালটা যেন নষ্ট না হয়। এরকমও করেছেন অনেকে।’

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আরও জানান, যারা নিবন্ধনের টাকা তুলে নিবেন না; পরের বছর হজে যাওয়ার ক্ষেত্রে তাঁরা অগ্রাধিকার পাবেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •