নিজস্ব প্রতিবেদক:
কুমিল্লা থেকে হারিয়ে যাওয়া কিশোরী তাসলিমা আক্তারকে গত ৬ জুন স্থানীয়দের সহায়তায় কক্সবাজার সদর থানা পুলিশ উদ্ধার করেছে।
উদ্ধারকৃত কিশোরী ব্রাম্মণবাড়িয়া জেলার বাসারামপুর থানার দশাইন গ্রামের মুসা মিয়ার কন্যা।
জানা যায়, কিশোরীকে উদ্ধার করে কক্সবাজার মডেল থানায় কর্মরত শিশু ও নারী সুরক্ষা বিষয়ক অফিসার নাজমুন নাহার কিশোরীর সুরক্ষা ও পরিবারে নিকট হস্তান্তরের লক্ষ্য ইউনিসেফের অর্থায়নে রোহিঙ্গা ও স্থানীয় শিশুদের সুরক্ষা উন্নয়নকারী সংস্থা অপরাজেয়-বাংলাদেশ (এনজিও) এর নিকট রেফার করেন।
সাধারণ ডায়েরি শিশু সুরক্ষা ও পরিবারের নিকট হস্তান্তরের লক্ষে কিশোরী তাসলিমাকে গ্রহণ করেন অপরাজেয় বাংলাদেশ । পরে তাসলিমার দেওয়া ঠিকানা অনুযায়ী তাকে নিয়ে যাওয়া হয় কুমিল্লার তিতাস থানার অর্ন্তগত মাসিমপুর এলাকায় তার নানার বাড়িতে। তার নানার নাম মতিন মিয়া । নানা মতিন মিয়া ও স্থানীয় প্রতিবেশিরা জানান, কিশোরী তাসলিমা বাবা মা এর অবহেলিত এবং নির্যাতনের শিকার তাই বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছে। তারা তাকে অনেক খোজ করেও পাননি।
এসময় হারিয়ে যাওয়া তাসলিমাকে তার পরিবার ফিরে পেয়ে অপরাজেয় বাংলাদেশ” কে ধন্যবাদ জানান। অপরাজেয়-বাংলাদেশের পক্ষে প্রিযুষ দাশ গুপ্ত (প্রজেক্ট কো-অরডিনেটর), এর নির্দেশনা অনুযায়ী এবং মাহফুজা আক্তার রুপা (সেন্টার ম্যানেজার) এর সহযোগিতায় অপরাজেয় বাংলাদেশ দুইজন শিশু সুরক্ষা কর্মী বিশ্বজি গোস্বামী (আউটরিচ ওয়ার্কার)ও রোকসানা আক্তার (কেইস ওয়ার্কার) কিশোরী তাসলিমাকে তার নানার বাড়িতে গিয়ে হস্তান্তর করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •