নিজস্ব প্রতিবেদক:
কক্সবাজার শহরের ঘোনারপাড়ায় মাদকাসক্ত স্বামীর অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে উঠেছে গৃহবধু। ওই মাদকাসক্ত স্বামীর অত্যাচার থেকে রেহাই মিলছে না কোন ভাবেই। এরই ধারাবাহিকতায় ২ সন্তানের জননী বেবী পালকে যৌতুকের জন্য অমানসিক নির্যাতন চালিয়েছে মাদকাসক্ত স্বামী রুবেল পাল। ঘটনাটি মঙ্গলবার দিবাগত রাত দেড় টার দিকে ঘটে। অভিযোগে জানা যায়, ১০/১২ বছর আগে মহেশখালী পৌরসভার গোরকঘাটা দক্ষিণ হিন্দু পাড়ার সন্তোষ দেব-এর মেয়ে বেবী পালের সাথে সামাজিক ভাবে বিয়ে হয় ঘোনারপাড়ার বাসিন্দা ও ভোলাবাবুর পেট্টোল পাম্বের কর্মচারী পরিমল পালের ছেলে ভাসমান ফল ব্যবসায়ী রুবেল পালের সাথে। আহত গৃহবধু বেবীর ভাই শিবলু অভিযোগ করে বলেন, বিয়ের পর তাদের সংসারে দুটি সন্তানও জন্মগ্রহণ করে। বিয়ের কয়েক বছর সুন্দর ভাবে সংসার অতিবাহিত হলেও গত কয়েক মাস ধরে রুবেল পাল মদ পান করে বাড়িতে গিয়ে তার বাবা পরিমল পাল, মা ডেজি পাল ও ছোট ভাইসহ যৌতুকের টাকার জন্য স্ত্রী বেবীকে শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন করতে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার রাত দেড় টার দিকে রুবেল অতিরক্তি মদপান করে গিয়ে স্ত্রী বেবীকে বিভিন্ন ধরণের ধারালো জিনিস দিয়ে অমানসিক নির্যাতন চালিয়ে বেবীর মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে মারাত্মক আহত করে। পরবর্তীতে বেবীর চিৎকারে পাশ^বর্তী লোকজন এগিয়ে আসলে মাদকাসক্ত রুবেল ও তারা পিতা-মাতা বাসা থেকে পালিয়ে যায়। বর্তমানে আহত বেবীকে সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •