ফেসবুক কর্ণার:
সম্ভবত৯৫/৯৬ এর দিকে।তখন আমি কক্সবাজার বায়তুশ শরফ এতিমখানার আবাসিক ছাত্র।আমার মায়ের হঠাৎ একটি জটিল রোগ ধরা পড়ল।নাক দিয়ে অঝুর ধরায় রক্ত গড়িয়ে পড়তো।যা একসাথে কয়েক কেজি পরিমাণ।ছোট ছিলাম বলে সিদ্বান্ত দেয়া বা নেয়ার কোনটায় ছিলনা আমার।বায়তুশ শরফের মহাপরিচালক এম.এম সিরাজুল ইসলাম কে সমস্যাটা জানানোর পর তিনি এড. ছালামত উল্লাহর কাছে যেতে বলেন।আমি আর মা ওনার বাসার চেম্বারে গিয়ে ওনাকে মায়ের সমস্যাটা খুলে বলি। তিনি তার প্যাডে একটি পত্র লিখে সোজা মরিচ্যা রাবেতা হাসপাতালে যেতে বলেন।আমি আর মা কোন রকম গাড়ী ভাড়া জোগাড় করে রাবেতায় পৌছি এবং ওনার লিখিত পত্রখানি দেখায়। ওনার লিখিত পত্র পেয়ে মাকে ভর্তি দেন।ওখানে আমরা মনে হয় ১৫/২০ দিন ছিলাম। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিনা পয়সায় মাকে আন্তরিক চিকিৎসা সেবা দিয়ে পরিপূর্ণ ভাল করেন আল্লাহর রহমতে।ওখানে যতদিন ছিলাম একটি টাকাও আমাদের খরছ করতে হয়নি।মওলা মহান এ মানবতাবাদী, গরীবের প্রকৃত বন্ধু- উকিল সাহেবকে ক্ষমা করিও।পাশাপাশি তোমার প্রিয়দের কাতারে শামিল করিও।আমীন।

Mohammad Salim -এর ফেসবুক থেকে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •