সোয়েব সাঈদ:
৫ জুন বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষ্যে গ্রীন এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট কক্সবাজার জেলা শাখার উদ্যোগে আয়োজন করা হয়েছে “বাস্তুতন্ত্র পুনরুদ্ধার” প্রতিপাদ্যে বিশেষ ওয়েবিনার।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ও গ্রীন এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট এর কেন্দ্রীয় সভাপতি দেলোয়ার হোসেন।

আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার-১ আসনের সাংসদ ও বন, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য জাফর আলম (বিএ এমএ), কক্সবাজার-২ আসনের সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিক, চট্রগ্রাম বিশ্বববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং ও বায়ুটেকনোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও কেন্দ্রীয় বন ও পরিবেশ উপ-কমিটির বিশেষজ্ঞ সদস্য ড. লায়লা খালেদা আঁখি, গ্রীন এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভুগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মহি উদ্দিন মাহী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় বন ও পরিবেশ উপ-কমিটির নির্বাহী সদস্য এড মিজানুর রহমান রুবেল, এটিএন নিউজের কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি অর্পন বড়ুয়া।

খ্যাতনামা বিদেশী আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন থাইল্যান্ডের নেচারাল হিস্টরি মিউজিয়ামের সাবেক পরিচালক ড. বরিপাট সিরিয়ারোনরাট ও আইইউসিএন কতৃক ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ হিরো ২০১৬ ড. বিভুতি প্রসাদ লাহকর, আরন্যক, আসাম, ভারত।

বিশেষ অতিথি হিসেবে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এস এম সাদ্দাম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান।

বক্তব্য রাখেন গ্রীন এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট মহেশখালী উপজেলা শাখার সভাপতি দিনুর আলম ও গ্রীন এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট টেকনাফ উপজেলা শাখার সভাপতি তারেক মাহমুদ রনি।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন চাইনিজ একাডেমি অফ সায়েন্স এর পরিবেশ ও বন্যপ্রাণী গবেষক ও গ্রীন এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট কক্সবাজার জেলা শাখার সহ-সভাপতি ড. নাছির উদ্দিন।

গ্রীন এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট কক্সবাজার জেলা শাখার সভাপতি মোস্তফা আনোয়ার চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন গ্রীন এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট কক্সবাজার জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কায়সার মাহমুদ।

জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান উনার বক্তব্যে পাহাড় সংরক্ষণ করে অধিক পরিমানে বৃক্ষরোপণের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন এবং জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বৃক্ষরোপণ অভিযানে গ্রীন এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট কক্সবাজার জেলা শাখার সাথে একাত্ততা প্রকাশ করেন।

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এস এম সাদ্দাম হোসেন ব্যক্তিগত উদ্যোগে সকল ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বৃক্ষরোপনের জন্য ছাত্র সমাজের প্রতি আহবান জানান।

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং ও বায়টেকনোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক বন ও পরিবেশ উপ-কমিটির বিশেষজ্ঞ সদস্য ড. লায়লা খালেদা আঁখি জীব বৈচিত্র সংরক্ষণ ও রোহিঙ্গাদের কারনে উজাড় হওয়া বনভুমি রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

গ্রীন এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভুগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মহি উদ্দিন মাহী আইন প্রনেতাদেরকে পরিবেশ বিশেষজ্ঞ ও পরিবেশ কর্মীদের সাথে সমন্বয় করে পরিবেশ সংরক্ষণে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখার অনুরোধ জানান।

আশেক উল্লাহ রফিক এমপি পরিবেশ সংরক্ষণের জন্য আন্ত-মন্ত্রনালয় সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে জলবায়ু ফান্ড তৈরি করে পরিবেশ সংরক্ষণে কাজ করার প্রতি গুরুত্ব প্রদান করেন এবং যে সকল কোম্পানি পরিবেশ বিনষ্টের জন্য দায়ী তাদেরকে ক্ষতিপূরনের ব্যবস্থা করে সে ক্ষতিপূরণের অর্থ পরিবেশ সংরক্ষণে ব্যয় করার আহবান জানান এবং জলবায়ু উদবাস্তুদের পূনর্বাসনের উদ্যেশ্যে কক্সবাজারের জলবায়ু আশ্রয়ন প্রকল্পের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

প্রধান আলোচকের বক্তব্যে কক্সবাজার-১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য, বন, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য জাফর আলম উনার বক্তব্যে প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, রোহিঙ্গাদের কারনে উজাড় হওয়া বনভুমি পূনরায় পরিকল্পিত বনায়ন, বন্যপ্রাণী ও বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতি রক্ষায় বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আহবান জানান। তিনি দেশের সর্ববৃহৎ পর্যটন শিল্প কক্সবাজার জেলার বীচ মেনেজমেন্ট কমিটি পুনর্গঠনের দাবি জানান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন বলেন,, আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা পরিবেশ সংরক্ষণে বাংলাদেশের পাশাপাশি বিশ্বব্যাপী ভুমিকা রেখে চলেছেন।আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক শেখ হাসিনার কর্মী হিসেবে পরিবেশ রক্ষায় কাজ করে যাচ্ছি। আমরা তরুন প্রজন্মকে সাথে নিয়ে পরিবেশ রক্ষায় কাজ কররে চাই।” প্রধান অতিথির বক্তব্যে দেলোয়ার হোসেন উপস্থিত সবাইকে বিশেষ করে বিদেশী দুই জন বিশেষজ্ঞ অতিথিদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •