অনলাইন ডেস্ক : পাঠ্য বইয়ে নয়, শিক্ষার্থীরা বরং আসক্ত হয়ে পড়ছে মোবাইলে। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন ধরে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ। এমন পরিস্থিতিতে বাগেরহাটের শিক্ষার্থীরা মোবাইল ফোনের প্রতি আসক্ত হয়ে পড়ছে। জেলা সদর থেকে গ্রামেও ছড়িয়ে পড়েছে এ আসক্ত। শিক্ষার্থীদের মধ্যে এমন আসক্ত দেখে মোবাইলের মাধ্যমে পড়ালেখা তথা শিক্ষার্থীদের ফোন ব্যবহার বন্ধ করার জন্য দাবি জানিয়েছেন।

খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, জেলার অধিকাংশ শিক্ষার্থীরা অনলাইনে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পড়ালেখায় সময়ের থেকে ভিডিও গেমসে সময় দিচ্ছে বেশি। ফোন হাতে পেলেই বিভিন্ন অজুহাতে নিজ দখলে রাখছে ফোন। এমনকি খেলার মাঠে বা শারীরিক কসরত হয় এরকম কোনো কর্মকাণ্ডেও দেখা যায় না তাদের।

বাগেরহাটের অভিভাবক আ. মোসলেম বলেন, অনলাইনে ক্লাস করার জন্য শিক্ষার্থীদের স্মার্ট ফোন কিনে দিতে বলেন স্কুলের শিক্ষকরা। নিজের কষ্টের দিকে না তাকিয়ে সন্তানের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের কথা ভেবে ফোন কিনে দিয়েছি। কিন্তু ক্লাসের থেকেও অধিকাংশ সময় শিক্ষার্থীরা অন্য দিকে আসক্ত হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষার্থীরা যদি লেখাপড়া না করে মোবাইলের অপব্যবহার করে তাহলে কী করব? তাদের কতক্ষণ চোখে চোখে রাখব? আমার মনে হয় শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে এই ক্ষতিকর পদ্ধতি বন্ধ করা উচিত।

শরণখোলা উপজেলা সদর রায়েন্দা সরকারি পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. সুলতান আহম্মেদ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ছেলে-মেয়েদের দিকে অভিভাবকদের নজর রাখা উচিত। সন্তান যেন পড়ালেখা ছাড়া গেমস বা অন্য কিছুর প্রতি আসক্ত না হয় সেদিকে নজর রাখতে হবে। এছাড়া সরকারের উচিত অনলাইনে গেমস খেলা বন্ধ করা। এমনটা না হলে পাঠ্য বইয়ের দিকে শিক্ষার্থীদের ফিরিয়ে আনা খুবই কঠিন হয়ে পড়বে।-আরটিভি

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •