আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস, দেশটির অন্যান্য প্রতিরোধ আন্দোলন এবং লেবাননেন হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে ইসরায়েলের দুর্বলতা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। প্রতিটি যুদ্ধের পর দুর্বল হচ্ছে ইসরায়েল, অন্যদিকে শক্তিশালী হচ্ছে হামাস। এমন মন্তব্য করা হয়েছে খোদ ইসরায়েল থেকে প্রকাশিত ইংরেজি দৈনিক হারেৎজ-এর একটি নিবন্ধে।

নিবন্ধের লেখক ড. গিল মুরসিয়ানো। তিনি লিখেছেন, মুখে বললেও বাস্তবে যুদ্ধের ‘গুরুত্বপূর্ণ অভিজ্ঞতা’ নেই ইসরায়েলের। ভাণ্ডারে অত্যাধুনিক অস্ত্র থাকলেও নেই শক্তিশালী কৌশল। সদ্য সমাপ্ত ১১ দিনের যুদ্ধে সেটা বারবার প্রমাণ হয়েছে।

হামাসের ছোঁড়া রকেট ঠেকানোর আয়রন ডোম যদি না থাকতো তাহলে ফিলিস্তিনের চেয়ে কয়েকগুণ বেশি মানুষ মারা যেত ইসরায়েলে। শুধু এই একটি কারণে অনেক বড় ধ্বংসযজ্ঞ থেকে বেঁচে গেছে ইসরায়েল। এর বাইরে কৌশলগত দিক থেকে তারা পরাজিত হয়েছে বলেই মনে করি।

মুরসিয়ানোর মতে, কৌশলগত নানা ভুল আর অনভিজ্ঞতার কারণে প্রতিটি যুদ্ধের পরেই ইসরায়েল দুর্বল হয়ে পড়ছে, বিপরীতে শক্তিশালী হচ্ছে হামাস। হতাশা ঢুকে পড়ছে ইসরায়েলি সেনাদের মনে, অন্যদিকে আরও চাঙা হচ্ছে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ যোদ্ধারা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •