মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার সফররত UNHCR এর সহকারী হাই কমিশনার (Protection) Ms. Gillian Triggs (গিলিয়ান ট্রিগস) এবং সহকারী হাই কমিশনার (Operation) Mr. Raouf Mazou (রউফ মাজাও) এর নেতৃত্বে ১৪ সদস্যের প্রতিনিধি দল মঙ্গলবার ১ জুন সকালে উখিয়ার কুতুপালং ৯ নম্বর রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শনকালে রোহিঙ্গা শরনার্থীদের বাংলাদেশে আশ্রয় দিয়ে মানবিকতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করায় বাংলাদেশ সরকার ও স্থানীয় জনগোষ্ঠীর ভূয়সী প্রশংসা করেছেন তাঁরা।

পরিদর্শনকালে UNHCR এর উচ্চ পর্যায়ের এ প্রতিনিধিদল ক্যাম্পের অভ্যন্তরে রোহিঙ্গা শরনার্থীদের সার্বিক ব্যবস্থাপনার বিষয় দেখে বেশ সন্তোষ প্রকাশ করেন।

জাতিসংঘের শরনার্থী বিষয়ক সহকারী হাই কমিশনার (Protection) Ms. Gillian Triggs এবং সহকারী হাই কমিশনার (Operation) Mr. Raouf Mazou সহ ১৪ সদস্যের প্রতিনিধিদল ক্যাম্পে আরআরআরসি শাহ রেজওয়ান হায়াত, অতিরিক্ত আরআরআরসি মোহাম্মদ সামছু দ্দৌজা, ক্যাম্প ইনচার্জ, ক্যাম্পের রোহিঙ্গা প্রতিনিধিদের সাথে বিভিন্ন বিষয়ে মতবিনিময় করেন।

বিশ্বস্ত একটু সুত্র জানিয়েছে, এই প্রথম UNHCR এর ২জন সহকারী কমিশনার একত্রে বাংলাদেশ সফরে এসেছেন। সেজন্য তাঁদের এ সফর বাংলাদেশের জন্য খুবই গুরুত্ব বহন করছে।

এরআগে গত ৩১ মে সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে জাতিসংঘের সহকারী কমিশনারদ্বয় ১৪ সদস্যের প্রতিনিধিদল সহ ঢাকা থেকে হেলিকপ্টার যোগে নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার ভাসানচরে পৌঁছান। সেখান থেকে ২ দিনের সফরে UNHCR এর সহকারী হাই কমিশনারদ্বয় সহ প্রতিনিধিদলের সদস্যরা সোমবার বেলা আড়াইটার দিকে হেলিকপ্টার যোগে কক্সবাজার আসেন।

জাতিসংঘের শরনার্থী বিষয়ক সহকারী হাই কমিশনার (Protection) Ms. Gillian Triggs এবং সহকারী হাই কমিশনার (Operation) Mr. Raouf Mazou সহ ১৪ সদস্যের প্রতিনিধিদল মঙ্গলবার ১ জুন বিকেল ৪ টা ৩৫ মিনিটে জাতিসংঘের উদ্বাস্তু বিষয়ক সহকারী কমিশনারদ্বয় সহ প্রতিনিধিদল ২ দিনের সফর শেষে হেলিকপ্টার যোগে কক্সবাজার ত্যাগ করার কথা রয়েছে।

UNHCR এর সহকারী হাই কমিশনার (Protection) Ms. Gillian Triggs এবং সহকারী হাই কমিশনার (Operation) Mr. Raouf Mazou সহ ১৪ সদস্যের প্রতিনিধিদল এর এ সফর খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও ইতিবাচক বলে মন্তব্য করে রোহিঙ্গা শরনার্থী নিয়ে গবেষণা করছেন এমন একজন গবেষক বলেছেন, তাঁদের রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প, ভাসানচর পরিদর্শন, উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক, রোহিঙ্গাদের সাথে মতবিনিময় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সহায়ক হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •