ইমাম খাইর, সিবিএনঃ
টেকনাফের নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্প থেকে খেলনার অস্ত্র ও চাকুসহ দুই রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)।

তারা হলেন- নয়াপাড়া রেজিস্ট্রার্ড ক্যাম্পের এইচ-ব্লকের হাতকাটা মাহাত আলম গ্রুপের প্রধান সন্ত্রাসী মোহাম্মদ আলম প্রকাশ হাত কাটা মাহাত আলম (৩৫) ও তার সহোযোগী রফিক (২৫)। সম্পর্কে তারা শ্যালক-দুলা ভাই।

সোমবার (৩১ মে) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে টেকনাফ নয়াপাড়া রেজিস্ট্রার্ড ক্যাম্প থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

সোমবার রাত ১১ টার দিকে খবরটি কক্সবাজার নিউজ ডটকম (সিবিএন)কে জানিয়েছেন কক্সবাজার ১৬ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন-(এপিবিএন) অধিনায়ক মোঃ তারিকুল ইসলাম তারিক।

তার দেয়া তথ্য মতে, নয়াপাড়া রেজিস্ট্রার্ড ক্যাম্পের এইচ-ব্লকের হাত কাটা মাহাত আলম গ্রুপের প্রধান সন্ত্রাসী মোহাম্মদ আলম প্রকাশ হাত কাটা মাহাত আলম ও তার সহোযোগী রফিক সিআইসি অফিসের আশপাশে অবস্থানের সংবাদের ভিত্তিতে এপিবিএন উক্ত এলাকা ঘেরাও করে অভিযান চালায়। এ সময় তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারের পর রফিকের স্বীকারোক্তি মোতাবেক রফিককে নিয়ে এইচ- ব্লকস্থ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান করে ১ টি খেলনা পিস্তল ও ১ টি ছোরা/চাকু (উভয় পিট ধারালো) যা অনুমান ৯” (৩” বাটসহ) উদ্ধার হয়।

১৬ এপিবিএন অধিনায়ক মোঃ তারিকুল ইসলাম তারিক জানান, গ্রেফতার দুই সন্ত্রাসীর পিসিপিআর যাচাই করে মামলা সংক্রান্ত অনেক তথ্য পাওয়া গেছে।

মোহাম্মদ আলমের নামে টেকনাফ থানার মামলা নং- ২৫/৭১৯, তারিখ- ১৪/০৮/২০২০ খ্রিঃ, ধারা- ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ৩৬ (১) এর ১০ (ক) এবং রফিকের নামে টেকনাফ মডেল থানায় মামলা নং-৪৭/১৯৬, তারিখ ১৫/০৩/২০২১ খ্রিঃ ধারা-৩০২/৩৪ পেনাল কোড ১৮৬০ মামলা রয়েছে।

গ্রেফতারকৃত মাহাত আলম অস্ত্রবাজ, মাদক ব্যবসায়ী এবং নিজে একটি গ্রুপের প্রধান এবং মাদক ব্যবসাকে কেন্দ্র করে ক্যাম্প এলাকায় একাধিক গোলাগুলির ঘটনাসহ জকির গ্রুপ ও পুতিয়া গ্রুপের সাথে সম্পৃক্ত হয়ে বিভিন্ন ধরনের আইন-শৃঙ্খলা পরিপন্থী কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত ছিল। প্রায় ১ বছর পূর্বে প্রতিপক্ষের সাথে সংঘর্ষে মাহাত আলমের বাম হাতের মাঝখানে প্রায় আলাদা হয়ে যায়। বর্তমানে চিকিৎসায় জোড়া লাগানো অবস্থায় আছে। মাহাত আলমের আপন শ্যালক রফিকও রোহিঙ্গা ক্যাম্পের শীর্ষ সন্ত্রাসীদের একজন। তাদের উপর সাধারণ রোহিঙ্গারা চরম ক্ষুব্ধ।

গ্রেফতার দুই সন্ত্রাসীকে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •