প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

সিইএইচআরডিএফ, ধলঘাটা হিলফুল ফুযল আদর্শ সংঘ,মোহাম্মদীয় ইসলামীয়া পাঠাগার, স্বপ্নছোয়া ফাউন্ডেশন, ধলঘাটা স্টুডেন্ট ফোরাম,দি এসেন্ডেন্ট স্টুডেন্টস অব ধলঘাটা, ধলঘাটা তরুণ ছাত্র সংঘ,ফুটন্ত ফুলের আসর,সিইএইচআরডিএফ ধলঘাটা ফোরাম সহ ধলঘাটার সচেতন নাগরিক ফোরামের উদ্যোগে টেকসই বেড়িবাঁধ ও উপকূলীয় মন্ত্রণালয়ের দাবীতে মানববন্ধন সম্পন্ন হয়েছে।

দি এসেন্ডেন্ট স্টুডেন্টস অব ধলঘাটার প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট, এস্তাখাব উদ্দিনের সঞ্চালনা ও সিইএইচআরডিএফ’র এক্টিং ডিভিশন কো-অর্ডিনেটর, সমন্বয়, আব্দুল মান্নান রানা’র সভাপতিত্বে মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে উপস্থিতিদের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখেন, হাফেজ আবু হেনা সহ সভাপতি হিলফুল ফুযুল আদর্শ সংঘ,
ডা:রবিউল হোসেন,সাবেক সহ-সভাপতি, হিলফুল ফুযল আদর্শ সংঘ, সাইফুল ইসলাম, আর্থ সম্পাদক হিলফুল ফুযুল আদর্শ সংঘ,
,মোরশেদ আলী সোহাগ, নির্বাহি পরিচালক স্বপ্নছোয়া ফাউন্ডেশন, আরিফুল ইসলাম মানিক, অর্থ সম্পাদক, মোহাম্মদীয়া ইসলামীয়া পাঠাগার, রফিকুল ইসলাম, উপদেষ্টা স্বপ্নছোয়া ফাউন্ডেশন, আবুবকর সিদ্দিক, এসিস্টেন্ট সেক্রেটারি, দি এসেন্ডেন্ট স্টুডেন্টস অব ধলঘাটা, আরিফুল ইসলাম শানিক,সেক্রেটারি, দি এসেন্ডেন্ট স্টুডেন্টস অব ধলঘাটা প্রমুখ।

আলোচনায় বক্তরা ধলঘাটার স্থানীয় বিভিন্ন সংকটকে চিহ্নিত করে তা নিরসনের জোর দাবী জানিয়ে বলেন, ধলঘাটাকে ২৯ এপ্রিল ১৯৯১ পর থেকে আমরা এভাবে অবহেলিত অবস্থায় দেখেই যাচ্ছি।সময়ের সাথে বহু চেয়ারম্যানকে পরিবর্তিত হতে দেখেছি কিন্তু, দুঃখজনক হলেও সত্য যে,এই ধলঘাটার জনগণের প্রত্যাশিত উন্নয়ন সাধিত হয়নি।আমরা দীর্ঘ অনেক বছর ধরে একটি টেকসই বেড়িবাঁধ চেয়ে আসছি। কিন্তু, আমাদের চাওয়ার তেমন কিছুই বাস্তবতায় রূপ নেয়নি।আমাদের এই ইউনিয়নের বুক চিরে সরকারের অর্থনৈতিক অঞ্চল ও বহু উন্নয়নমুলক কর্মযজ্ঞ চলছে।অথচ,এই এলাকার মানুষের আর্থসামাজিক জীবনমানের কোনো উন্নয়ন হয়নি।একটি টেকসই বেড়িবাঁধ না থাকার ফলে পূর্নিমা-অমাবস্যার, ছোটখাট ঘূর্নিঝড়সহ ও ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের আংশিক প্রভাবেই সমগ্র ধলঘাটা নিমিষে প্লাবিত হয়ে চিংড়ি প্রজেক্ট থেকে শুরু করে মানুষের বসতবাড়ি, বাজার ঘাট ও মালামালের কোটি কোটি টাকা মূল্যের ক্ষতি সাধিত হয়।স্থানীয়রা জানাই ধলঘাটার দক্ষিণে তৈরিকৃত প্রায় ৩০ হাজার ব্লক অকার্যকর অবস্থায় পড়ে রয়েছে যদি সেগুলো অন্তত বেড়িবাঁধে ব্যবহার করা যেতো, তবে কিছুটা হলেও মানুষ স্বস্তি পেত।
সভাপতির বক্তব্যে আব্দুল মান্নান রানা বলেন,জনগণের অংশগ্রহণের মাধ্যমে টেকসই বেড়িবাঁধ ধলঘাটার ২০ হাজার মানুষের সময়ের দাবি হয়ে দাঁড়িয়ে।ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের প্রতি ত্রান ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের ইমার্জেন্সি রেসপন্স বিভাগের কার্যকর ভূমিকার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।সেই সাথে বাংলাদেশ যেহেতু, পৃথিবীর অন্যতম ক্লামেট এপেক্টেড দেশ সে দৃষ্টিকোণ থেকে দেশে একটি উপকূলীয় মন্ত্রণালয় প্রয়োজন মনে করে সংশ্লিষ্টদের কাছে জোর দাবি তোলে ধরেন।

মানববন্ধনটি কার্যকর ও সুশৃঙ্খল হওয়ার নেপথ্যে বুদ্ধি বৃত্তিক পরামর্শ দিয়ে অগ্রণী ভূমিকা রাখেন, হিলফুল ফুজল আদর্শ সংঘের প্রতিষ্ঠাতা ও বর্তমান প্রধান উপদেষ্টা, হক মুহাম্মদ আল মামুন।ধলঘাটা স্টুডেন্টস ফোরামের সাবেক সভাপতি, শাহাদাত হোছাইন, বন্ধু ফাউন্ডেশনের সেক্রেটারি ইসমাত উল্লাহ। মোহাম্মদীয়া ইসলামীয়া পাঠাগারের প্রেসিডেন্ট খন্দকার রায়হান উদ্দিন। স্বপ্নছোয়া ফাউন্ডেশনের প্রধান উপদেষ্টা, প্রবাসী সেলিম উল্লাহ। তরুণ ছাত্র সংঘের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, জয়নাল আবেদীন সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •