সিবিএন ডেস্ক:
গোপনে বিয়ে করে ফেললেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ওয়েস্টমিনিস্টারের একটি ক্যাথিড্রালে স্থানীয় সময় শনিবার (২৯ মে) রাতে নিজের প্রেমিকা ক্যারি সাইমন্ডসের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি। যদিও এই বিয়ে নিয়ে এখনও কোনো মন্তব্য করেনি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর দফতর ১০ ডাউনিং স্ট্রিট।

বেশ কিছু গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, শনিবার পরিবার ও ঘনিষ্ঠ বন্ধু-বান্ধবের উপস্থিতিতে দীর্ঘদিনের প্রেমিকা ক্যারি সিমন্ডসকে বিয়ে করেন তিনি। এর আগে ২০১৯ সালের শেষের দিকে তাদের বাগদান হয়।

৫৬ বছর বয়সী বরিস জনসনের এটি তৃতীয় বিয়ে হলেও তার চেয়ে ২৩ বছরের ছোট ক্যারি সিমন্ডসের এটা প্রথম বিয়ে। এর আগে এক ঘোষণায় জানানো হয়েছিল যে, ২০২২ সালের জুলাই মাসে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান হবে। সে অনুযায়ী, আত্মীয়-স্বজনদের কাছে বিয়ের নিমন্ত্রণপত্রও পাঠানো হয়।

২০১৯ সালে বরিস যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী হন। প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে বরিস ও ক্যারি ডাউনিং স্ট্রিটে বসবাস করে আসছেন। ৫৬ বছর বয়সী বরিস ও ৩৩ বছর বয়সী ক্যারি ডাউনিং স্ট্রিটে বসবাসকারী প্রথম অবিবাহিত যুগল। তাদের একটি ছেলেসন্তান রয়েছে। বরিসের আগের স্ত্রীর নাম ম্যারিনা হোয়েলার। ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে তারা আলাদা হয়ে যান। হোয়েলারের আগে আরেক নারীকে বিয়ে করেছিলেন বরিস। সে হিসেবে ক্যারি হবেন বরিসের তৃতীয় স্ত্রী।

তবে এখন বিয়ে সম্পন্ন হওয়ায় নতুন একটা রেকর্ডে প্রায় ২০০ বছর পরে সাবেক প্রধানমন্ত্রী লর্ড লিভারপুলের পাশে নিজের নাম লেখালেন বরিস জনসন। ১৮২২ সালে প্রধানমন্ত্রী থাকা অবস্থায় বিয়ে করার প্রথম দৃষ্টান্ত রেখেছিলেন লর্ড লিভারপুল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •