আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:
চট্টগ্রামের আধুনিক রোগ নিরূপণি কেন্দ্র শেভরন ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরির প্রতিষ্ঠাতা ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. এ এ গোলাম মর্তুজা হারুন আর নেই। শনিবার ভোর রাতে তিনি নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন (ইন্না-লিল্লাহ রাজেউন)।

শনিবার বাদে আসর (বিকাল ৫টা) জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদ প্রাংগনে তাঁর নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি করোনা পরবর্তী শারীরিক জটিলতায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সর্বশেষ ২৭ মে থেকে তাকে চট্টগ্রামের সিএসসিআর হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়।

শেভরনের জেনারেল ম্যানেজার পুলক পাড়িয়াল জানান, গত ১২ মে ডা. গোলাম মর্তুজা হারুনের শরীরে করোনা পজেটিভ ধরা পড়ে। ২২ মে তিনি কোভিড নেগেটিভ হলেও তাঁর ফুসফুসের সংক্রমণ আকস্মিকভাবে নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়ে।

চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক মানের রোগ নিরূপণী কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার স্বপ্নদ্রষ্টা মনে করা হয়ে থাকে ডা. গোলাম মর্জা হারুনকে। তাঁর হাত ধরেই চট্টগ্রামের প্রথম আধুনিক রোগ নিরূপণি কেন্দ্র শেভরণের যাত্রা শুরু হয়। পরবর্তীতে চট্টগ্রামে আরো অনেক নামী ও অভিজাত ল্যাব-ডায়াগনস্টিক সেন্টার তাদের কার্যক্রম শুরু করে।

শেভরণ আনোয়ারা শাখার ব্যবস্থাপনা পরিচালক মীর মোশাররফ হোসেন জানান, ডা. মর্তুজা হারুন সবসময় রোগ নিরূপণে আধুনিক প্রযুক্তি সংযোজনের চেষ্টায় ছিলেন। আধুনিক রোগ নিরূপণি ব্যবস্থা তিনি গ্রাম পর্যায়েও বিস্তৃত করেছেন। আন্তর্জাতিক মানের শেভরন ক্লিনিক্যাল ডায়াগনস্টিক সেন্টারের প্রতিষ্ঠাতা তিনি। রোগ নির্ণয়ে আধুনিক এই ডায়াগনস্টিক সেন্টার আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত হয়েছে। চট্টগ্রামে প্রথম বেসরকারি পর্যায়ে করোনা পরীক্ষাগার প্রতিষ্ঠা হয়েছে তাঁর হাত ধরে। যেখানে প্রবাসী বিমানযাত্রীরা কম সময়ে সনদ নেয়ার সুযোগ পাওয়ায় অনেকের দুর্ভোগ লাঘব হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •