মিজানুর রহমান :

কুতুবদিয়ায় বেড়িবাঁধের ৭টি পয়েন্টে সামুদ্রিক জোয়ারের পানি ডুকে প্লাবিত হয়েছে বিস্তীর্ণ এলাকা। গত বুধবার থেকে টানা ২য় দিনেও পূর্ণিমার জোয়ারের পানিতে উপজেলার প্লাবিত ভয়াবহ ভাঙ্গন পয়েন্ট সমূহ হচ্ছে উত্তর ধূরুং ইউনিয়নের‘পশ্চিম চরধূরুং, মিয়াজীর পাড়া, দক্ষিণ ধূরুং ইউনিয়নের পুরাতন বাতিঘর পাড়া, কৈয়ারবিল ইউনিয়নের বিন্দাপাড়া, মতিরবাপের পাড়া, বড় মৌলভী পাড়া, মলমচর, বড়ঘোপ ইউনিয়নের উত্তর বড়ঘোপ, ঝাউতলা পাড়া, আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের কিরণ পাড়া, হায়দার পাড়া, কাজীর পাড়া, আনিচের ডেইল, বায়ু বিদ্যুৎ ও লেমশীখালী ইউনিয়নের দরবার জেটির দক্ষিণ এলাকাসহ ভাঙ্গা বেড়িবাঁধ দিয়ে ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়ে কয়েক হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। ঐসব এলাকার নিন্মাঞ্চলের কয়েক’শ বাড়িঘর, মৎস্যক্ষেত ও ফসলের জমি জোয়ারে তলিয়ে গেছে। পানি বন্দি ঘরবাড়ির লোকজন পাশ্ববর্তী আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছে।

এদিকে বৃহষ্পতিবার (২৭মে) ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে আসেন  আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, জেলা আ’লীগ সভাপতি ও কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এড. ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জাহিদ ইকবাল সহ সমন্বিত একটি দল৷

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •