এম বশির উল্লাহ, মহেশখালী:

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের পরবর্তী প্রভাব ও পূর্ণিমার অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে ঘূর্ণিঝড়ের পরদিনও তলিয়ে গেছে মহেশখালী উপজেলার ধলঘাটা ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রাম।

বৃহস্পতিবার দুপুরের স্বাভাবিকের তুলনায় অধিক জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে কয়েকটি গ্রাম। এতে আজও পানিবন্দী হয়ে পড়েছে মধ্যম সুতরিয়া পাড়া ও লম্বা মসজিদ এলাকাসহ ইউনিয়নের প্রায় হাজারো পরিবার।

এদিন দুপুরেও প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন করেছেন স্থানীয় চেয়ারম্যান কামরুল হাসান।

চেয়ারম্যান কামরুল হাসান বলেন, প্রকৃতির কাছে হেরে গেলাম আমরা ধলঘাটাবাসী। ৫ বছর ধরে তিলে তিলে গড়ে তুলা বেড়িবাঁধ আর সড়ক উন্নয়ন সহ সব কিছু কেড়ে নিল ঘূর্ণিঝড় ইয়াস। বৃহস্পতিবারও স্বাভাবিকের তুলনায় প্রায় ৪ ফুট অধিক পানিতে মধ্যম সুতরিয়া পাড়া ও লম্বা মসজিদ এলাকাসহ আশপাশ এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে।

সংশ্লিষ্টদের প্রতি আকুল আবেদন জানিয়ে তিনি আরো বলেন, আসুন দেখুন এবং জরুরী ভিত্তিতে ত্রাণ নয় টেকসই বেড়িবাঁধ আর সড়ক উন্নয়ন করে ধলঘাটাবাসীর জীবন জীবিকা নিশ্চিত করুন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •