মোহাম্মদ হোসেন,হাটহাজারী:
দেশের অন্যতম বৃহৎ প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীতে (২৭ মে) রাতে মা-মাছ ডিম ছেড়েছে। ২৬ মে মধ্যরাতে নমুনা ডিম পাওয়ার ২৪ ঘন্টার মধ্য নদীতে ডিম দেখা দেয়। নদীর সব জায়গায় ডিম সংগ্রহকারীরা নৌকা নিয়ে অপেক্ষা করছিল। এবারও রেকর্ড পরিমান ডিম ছেড়েছে মা-মাছ। রাউজান হাটহাজারী সীমান্তে প্রায় ১৫ কিলোমিটার এলাকায় ডিম সংগ্রহ করেছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষক ও হালদা নদীর উপর গবেষক মনজুরুল কিবরিয়া সাংবাদিকদের বলেন, মা-মাছ ২৬ মে মধ্যরাতে মা -মাছ নমুনা ডিম ছাড়ে। এবার সব চেয়ে বেশি ডিম ছেড়েছে বলে তিনি উল্লেখ্য করেনও এ বছর রেকর্ড পরিমান ডিম সংগ্রহ করেছে নদী থেকে। প্রায় চার শতাধিক নৌকায় এক হাজার ডিম সংগ্রহকারী নদীতে ডিম সংগ্রহ করেছে। মা মাছ সাধারণ এপ্রিল-মে-জুন মাসের মধ্যে ডিম ছাড়ে। ডিম ছাড়ার বিষয়টি অমাবস্যা ও পূর্ণিমার উপর নির্ভর করে থাকে। যেহেতু এখন পূর্ণিমার জোয়ার শুরু হয়েছে সেহেতু সার্বিক দিক বিবেচনা করে রেণু পোনা ছাড়ার জন্য এটি উপযুক্ত সময়। হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) মোহাম্মদ রুহুল আমিন বলেন,আনুমানিক রাত ১টার সময় ডিম ছাড়ে। পরিবেশ ভালো থাকায় এবারও হালদা নদীতে মা-মাছ প্রচুর ডিম ছেড়েছে । উপজেলার গড়দুয়রা নয়াহাট এলাকায় ৩/৪ কেজি করে নৌকায় ডিম সংগ্রহ করেছে বলে তিনি জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •