প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

আন্তর্জাতিক ফিসটুলা দিবস উদযাপন করেছে হোপ ফাউন্ডেশন উইমেন এন্ড চিল্ড্রেন অব বাংলাদেশ এর উদ্যোগে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রঙ্গনে দিনটি উদযাপন করেছে। সরকারের স্বাস্থ্য বিধি মেনে দিনব সুমন বড়ুয়া।

উদ্বোধনী বক্তব্য তিনি বলেন, ফিস্টুলা দিবসে সরকার নানা রকম কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। আমরা আশাবাদী আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে ফিসটুলা নির্মুল করতে সক্ষম হবো।

আন্তর্জাতিক প্রসবকালীন ফিস্টুলা উপলক্ষে আলোচনা সভারও আয়োজন করা হয়।

উক্ত আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন হোপ হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা প্রাপ্ত ১৫ জন সুস্থ মহিলা।

হোপ ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি ডিরেক্টও কেএম জাহিদুজ্জামান বলেন, হোপ ফাউন্ডেশন ২০১১ সাল থেকে সরকারের সহযোগিতায় মাঠ পযার্য়ে কাজ করে আসছে। প্রতিটি প্রতিষ্ঠানিক ডেলিভারি নিশ্চিটত করা যায় তাহলে ফিস্টুলা নির্মুল করা সম্ভব।

হোপ হাসপাতালের ফিসটুলা কনসালটেন্ট ডা নৃম্নয় বিশ্বাস বলেন,  হোপ হসপিটালে প্রতিটি প্রসূতিকে প্রাতিষ্ঠানিক ডেলিভারি করা হয়। অত্যন্ত যত্নের সাথে ও সুদক্ষ গাইনী চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে এখানে ডেলিভারি করানো হয়।

উল্লেখ্য, কক্সবাজারের কৃতিসন্তান, আমেরিকা প্রবাসী চিকিৎসক ইফতেখার মাহমুদ ১৯৯৯ সালে প্রতিষ্ঠান করেন হোপ ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন। ক্ষুদ্র পরিসর থেকে শুরু করা প্রতিষ্ঠান আজ মহীরূহে পরিণত হয়েছে। হোপ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে হোপ হসপিটাল, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফিল্ড হসপিটাল ও জেলা বিভিন্ন এলাকা বেশ কয়েকটি বার্থসেন্টার ও মেডিকেল সেন্টার পরিচালিত হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •