সংবাদদাতা:
S.S.C. – 99 Batch Cox’s Bazar District এর সহযোগী সংগঠন এসএসসি’৯৯ ব্যাচ রামু উপজেলার বন্ধু মীর কাসেম, অভি বড়ুয়া ও শফি উল্লাহ ছিদ্দীক শফির সৌজন্যে অফিসেরচর জেলা পরিষদের ডাক বাংলো (ক্যাপ্টেন হিরাম কক্সের বাসভবন) এ ঈদ পূনর্মিলনী ও মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন করা হয়।

শনিবারের (২২মে) এর এই আয়োজনে আমন্ত্রিত এসএসসি’৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার জেলাসহ এসএসসি’৯৯ ব্যাচ উখিয়া উপজেলা, এসএসসি’৯৯ ব্যাচ টেকনাফ উপজেলা, এসএসসি’৯৯ ব্যাচ ঈদগাহ উপজেলার শতাধিক বন্ধুর সম্মিলন ঘটে।

অনুষ্ঠান ক্যাপ্টেন হিরাম কক্সের বাসভবন আয়োজনের সুবাদে জেলার নামকরণের ইতিহাস জানতে গিয়ে “৯৯” খোঁজে পাই সেটা ছিল “১৭৯৯”।

বাংলাদেশের অতিগুরুত্বপূর্ণ জেলাগুলোর মধ্যে একটি কক্সবাজার; যৌক্তিকতা বিবেচনায় সতন্ত্র আঞ্চলিক ভাষা, নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, সমৃদ্ধ ইতিহাস, ঐতিহ্য, বৈচিত্র্যপূর্ণ সংস্কৃতি, দৃষ্টিনন্দন জীবনাচার মন কাড়ে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের। পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত, প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন, ঐতিহাসিক মসজিদ বৌদ্ধ মন্দির ও মিনার, পুকুর, দিঘী, ছড়া, নদী, পাহাড়, অরণ্যসহ হাজারও সুন্দরের রেশ ছড়িয়ে আছে এ জেলায়।

বাংলাদেশের প্রতিটি জেলার নামকরণের সঙ্গে রয়েছে ঐতিহ্যপূর্ণ ইতিহাস। এসব ঘটনা ভ্রমণপিপাসু উৎসুক মনকে আকর্ষণ করে। তাই নতুন করে জানানো হচ্ছে কক্সবাজার জেলার নামকরণের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস।

সারি সারি ঝাউবন, বালুর নরম বিছানা, সামনে বিশাল সমুদ্র— এ নিয়ে মনোরম কক্সবাজার। নীল জলরাশি আর শোঁ শোঁ গর্জনের মনোমুগ্ধকর সমুদ্র সৈকতের নাম কক্সবাজার। এটি বিশ্বের বৃহত্তম সমুদ্র সৈকত।

এ জেলার ওপর দিয়ে বয়ে গেছে মাতামুহুরী, বাঁকখালী, রেজু, কুহেলিয়া ও নাফ নদী। পর্যটন, বনজ সম্পদ, মৎস্য, শুটকি মাছ, শামুক, ঝিনুক ও সিলিকা সমৃদ্ধ বালুর জন্য কক্সবাজার বরাবরই ভ্রমণবিলাসী পর্যটকদের কাছে অন্যতম আকর্ষণ।

কক্সবাজারের প্রাচীন নাম ‘পালংকী’। একসময় এটি ‘প্যানোয়া’ নামে পরিচিত ছিল। প্যানোয়া শব্দের অর্থ ‘হলুদ ফুল’। অতীতে কক্সবাজারের আশপাশের এলাকা হলুদ ফুলে ঝকমক করতো।

আধুনিক কক্সবাজারের নামকরণ হয়েছে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির নৌ-কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন হিরাম কক্সের নামানুসারে। তিনি এখানে একটি বাজার প্রতিষ্ঠা করেন। এটি ‘কক্স সাহেবের বাজার’ নামে পরিচিতি পায়; সেখান থেকে ‘কক্সবাজার’ নামের উৎপত্তি।

এর আরেকটু গভীরে গেলে জানা যাবে দুশ বছর আগের “৯৯” এর ইতিহাস আরব ব্যবসয়ী ও ধর্ম জপ্রচারকগণ ৮ম শতকে চট্টগ্রাম ও আকিয়াব বন্দরে আগমন করেন। এই দুই বন্দরের মধ্যবর্তী হওয়ায় কক্সবাজার এলাকা আরবদের ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে আসে।

নবম শতাব্দীতে কক্সবাজার সহ বৃহত্তর চট্টগ্রাম হরিকেলার রাজা কান্তিদেব দ্বারা শাসিত হয়। ৯৩০ খ্রিস্টাব্দে আরাকান রাজা সুলাত ইঙ্গ চট্টগ্রাম দখল করে নেবার পর থেকে কক্সবাজার আরাকান রাজ্যের অংশ হয়।

১৭৮৪ সালে রার্মারাজ বোধাপায়া আরাকান দখল করে নেয়। ১৭৯৯ সালে বার্মারাজের হাত থেকে বাঁচার জন্য প্রায় ১৩ হাজার আরাকনি কক্সবাজার থেকে পালিয়ে যায়। এদর পূনর্বাসন করার জন্য ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি একজন হিরাম কক্সকে নিয়োগ করে।

পূনর্বাসন প্রক্রিয়া শেষ হবার পূর্বেই হিরাম কক্স মৃত্যু বরণ করেন। পূনর্বাসন প্রক্রিয়ায় তাঁর অবদানের জন্য কক্স-বাজার নামক একটি বাজার প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। এই কক্স-বাজার থেকে কক্সবাজার নামের উৎপত্তি। পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায় তাঁর অবদানের জন্য কক্সবাজোর জেলার নামের উৎপত্তি।

ইতিহাস জানার সুযোগ করে দেয় ভেন্যু নির্বাচন ও কনফার্ম এর অন্যতম সদস্য প্রিয় বন্ধু সোয়েব সাঈদ দঃখের বিষয় তার বড় ছেলে ওয়াসেফ সাঈদ অসুস্থ হয়ে হসপিটালে ভর্তি থাকায় সে অনুপস্থিত ছিল। উপস্থিত সকলে তার সন্তান ও ইমাম হোসেনের জন্য দোয়া করে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •