আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের পাশাপাশি ভারতে ‘ব্ল্যাক ফাঙ্গাস’-এর সংক্রমণ চিন্তায় ফেলেছে দেশটির চিকিৎসকদের। এর মধ্যে এবার ধরা পড়ল ছত্রাক সংক্রমিত ‘হোয়াইট ফাঙ্গাস’। চিকিৎসকরা বলছেন, ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের চেয়েও বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে হোয়াইট ফাঙ্গাস।

ভারতের সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার (২০ মে) ভারতের বিহার রাজ্যে হোয়াইট ফাঙ্গাস সংক্রমিত চারজন রোগী শনাক্ত হয়েছেন।

চিকিৎসকরা বলেন, ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সংক্রমণ শুধু মুখের আশপাশের অঙ্গগুলোতে হয়। কিন্তু হোয়াইট ফাঙ্গাস খুব দ্রুত অন্য অঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে। ফুসফুস, যকৃৎ, বৃক্ক, যৌনাঙ্গসহ সব অঙ্গেই অত্যন্ত দ্রুত সংক্রমিত হতে পারে এই ভাইরাসে। নখের মাধ্যমে শরীরের নানা জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে এটি। তারপরে অঙ্গগুলোকে বিকলও করে দিতে পারে এই ছত্রাক।

jagonews24

ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সংক্রমণে মৃত্যুর হার অত্যন্ত বেশি। তবে হোয়াইট ফাঙ্গাসে সংক্রমণে মৃত্যুর হার সম্পর্কে এখনও স্পষ্ট কোনো ধারণা নেই। কিন্তু নানা অঙ্গে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার প্রবণতা দেখে চিকিৎসকদের ধারণা, এটি আরও বেশি বিপজ্জনক হতে পারে।

হোয়াইট ফাঙ্গাসে আক্রান্ত চারজনকে পর্যবেক্ষণের পর বিশেষজ্ঞরা জানায়, আক্রান্তদের শরীরে করোনার যাবতীয় উপসর্গ থাকা সত্ত্বেও পরীক্ষায় সংক্রমণ ধরা পড়েনি। এর পেছনে হোয়াইট ফাঙ্গাসের কোনো ভূমিকা আছে কি-না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, হোয়াইট ফাঙ্গাস গর্ভবতী নারী এবং শিশুদের বেশি পরিমাণে আক্রান্ত করতে পারে। তাই অতি দ্রুত এই ছত্রাক সম্পর্কে আরও জানার চেষ্টা করছেন তারা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •