স্পোর্টস ডেস্ক
এবারের এশিয়া কাপ নিয়ে আলোচনা আর সব বারের চেয়ে বেশি ছিল। সেটা শুধু করোনাভাইরাসের কারণে নয়, ভেন্যু নিয়ে ছিল জটিল সমস্যা। কারণ ‘অরিজিনাল’ আয়োজক ছিল পাকিস্তান। ভারত সেখানে খেলতে যেতে আপত্তি জানায়। তাই পাকিস্তান থেকে সরিয়ে টুর্নামেন্টটি নিয়ে যাওয়া হয় শ্রীলঙ্কায়। এরপরও শেষরক্ষা হলো না। করোনাভাইরাসের কারণে বাতিলই হয়ে গেলো এবারের এশিয়া কাপ।
এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) থেকে যদিও আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি, তবে আয়োজক শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের (এসএলসি) প্রধান নির্বাহী অ্যাশলে ডি সিলভা নিশ্চিত করেছেন বিষয়টি। আজ (বুধবার) সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানিয়েছেন, এশিয়া কাপ বাতিল করা হয়েছে।

এশিয়ান ক্রিকেটের শ্রেষ্ঠত্বের এই আসর গত বছর হওয়ার কথা ছিল পাকিস্তানে। কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারীতে স্থগিত হয়ে যায়। এরপর রাজনৈতিক টানাপোড়েনে ভারত সেখানে খেলতে যেতে আপত্তি জানানোয় অনেক আলোচনার পর সামনের মাসে শ্রীলঙ্কায় হওয়ার কথা ছিল এশিয়া কাপ। কিন্তু এসএলসির প্রধান নির্বাহী জানিয়ে দিলেন, জুনে হচ্ছে না প্রতিযোগিতাটি।
সংবাদমাধ্যমকে ডি সিলভা বলেছেন, ‘বর্তমান অবস্থায় কোনোভাবেই এ বছরের জুনে টুর্নামেন্ট আয়োজন করা সম্ভব নয়।’ তাহলে কবে নাগাদ হতে পারে? এই প্রশ্নের উত্তরে হতাশার কথাই শুনিয়েছেন শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী। জানিয়েছেন, ২০২৩ বিশ্বকাপ পর্যন্ত এশিয়া কাপ করা সম্ভব নয়, কারণ আগামী দুই বছরের জন্য সব দল তাদের সূচির পরিকল্পনা সেরে রেখেছে।
ডি সিলভা জানিয়েছেন, এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল থেকে দ্রুতই এশিয়া কাপ বাতিলের ঘোষণা আসবে।
করোনাভাইরাসের ভয়াবহতায় ১০ দিনের জন্য সব ধরনের আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ করে দিয়েছে শ্রীলঙ্কান সরকার। তবে এর মধ্যেই ‘দ্বিতীয় সারি’র ভারতের সঙ্গে ছয় ম্যাচের সীমিত ওভারের সিরিজ ঠিকই আয়োজন করবে শ্রীলঙ্কা।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •