সিবিএন ডেস্ক:
গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের পর নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে আটশর অধিক মানুষ হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে। একটি অ্যাকটিভিস্ট গ্রুপ এই তথ্য জানিয়েছে।

রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী ও নোবেল শান্তি বিজয়ী অং সান সুচি সরকারকে সেনাবাহিনী ক্ষমতাচ্যুত করলে দেশটিতে বিক্ষোভ দানা বাঁধে। দেশটির বিভিন্ন শহরে সামরিক অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে গণতন্ত্রপন্থি জনগণ বিক্ষোভ শুরু করলে নিরাপত্তা বাহিনী সহিংসভাবে বিক্ষোভ দমন শুরু করে। এছাড়া দেশটির নৃগোষ্ঠী বিদ্রোহী এবং নতুনভাবে গঠিত মিলিশিয়াদের সঙ্গে সেনাবাহিনীর লড়াই শুরু হয়।

অধিকার গ্রুপ ‘অ্যাসিসট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনারস’ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, মিয়ানমারে গতকাল সোমবার পর্যন্ত জান্তার হাতে ৮০২ জন হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে। দৈনন্দিন এক ব্রিফিংয়ে সংস্থাটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, হত্যাকাণ্ডের এই সংখ্যা তারা যাচাই করেছেন। জান্তার হাতে হত্যার প্রকৃত সংখ্যা এর থেকে অধিক। এছাড়া নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে ৪ হাজার ১২০ জন গ্রেপ্তার এবং ২০ জনকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেয়া হয়েছে বলেও সংস্থাটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •