মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

সুপ্রীম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার মো: রুহুল কুদ্দুস (কাজল) সাতক্ষীরা জেলা আইনজীবী সমিতির ছয় বারের নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ও সাত বারের নির্বাচিত সাবেক সভাপতি এডভোকেট মোঃ শাহ আলমকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতারের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও নিন্দা প্রকাশ করেছেন। ব্যারিস্টার মো: রুহুল কুদ্দুস কাজল সাতক্ষীরা বারের সদ্য সাবেক সভাপতি মো: শাহ আলমকে অবিলম্বে মুক্তির দাবি জানিয়েছেন।

সোমবার ১৭ মে গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে ব্যারিস্টার কাজল আরো বলেন, আমরা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করেছি, আইনজীবী সমিতির নির্বাচিত সভাপতি হিসাবে অর্পিত দায়িত্ব পালনকালে এক বছরের পুরনো একটি ঘটনায় দীর্ঘদিন পরে দায়েরকৃত মামলায় এডভোকেট মোঃ শাহ আলম সহ বেশ কয়েকজন আইনজীবীকে আসামী করা হয়েছে। আদালত প্রাঙ্গণ থেকে টাউট উচ্ছেদে সমিতির গৃহীত ইতিবাচক পদক্ষেপের কারণে এডভোকেট মোঃ শাহ আলমের মত একজন সিনিয়র আইনজীবী নেতাকে বিনা কারণে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার করে জেলে পাঠানোর ঘটনা প্রমাণ করে, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনটির অপব্যবহার চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে। দেশের নাগরিকগণ ক্রমশ নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়ছেন। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনটি বাতিল করা এখন সময়ের দাবি।

বিবৃতিতে ব্যারিস্টার কাজল অবিলম্বে এডভোকেট মোঃ শাহ আলম এর মুক্তি দাবি করেছেন এবং বিজ্ঞ আইনজীবীদের নামে দায়েরকৃত মিথ্যা ও হয়রানিমুলক মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবি জানান।

প্রসঙ্গত, লিয়াকত হোসেন নামক একজন শিক্ষানবিশ আইনজীবীর তথ্য প্রযুক্তি আইনে সাতক্ষীরা সদর থানায় করা একটা মামলায় এডভোকেট মোঃ শাহ আলমকে গত ১৬ মে সাতক্ষীরার মেহেদীবাগ বাসা থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। এই মামলায় আরো ৪ আইনজীবীকে আসামী করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •