মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু :
বান্দরবানের নাইক্ষংছড়ি উপজেলার বাইশারীতে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক বাইশারী শাখার ২য় কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম (৫৯) নিজ কর্মস্থলে স্ট্রোক করে মৃত্যু বরণ করেছেন। তার গ্রামের বাড়ি বান্দরবানের লামা উপজেলায় বলে জানা যায়।
রবিবার (১৬ মে) বিকাল সাড়ে ৫ টার সময় ব্যাংকের ভিতরেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি। বিষয়টি জানিয়েছেন ঐ ব্যাংকের ব্যবস্থাপক জাহাঙ্গীর আলম। তিনি বলেন ঐ সময় তিনি ব্যাংকের কাজে বাইশারী ইউনিয়নের চাক পাড়ায় অবস্থান করছিলেন । হঠাৎ ব্যাংকের অফিসার সুব্রত মোবাইল ফোন করে জানান কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম ব্যাংকের ভিতরেই স্ট্রোক করে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। তিনি তাৎক্ষণিকভাবে ব্যাংকে এসে বিষয়টি উর্ধতন কতৃপক্ষকে অবহিত করেন এবং স্থানীয় চেয়ারম্যান ও পুলিশকে অবহিত করেন।
ব্যাংক অফিসার সুব্রত জানান তিনি পার্শ্ববর্তী রুমে অবস্থান করছিলেন ঐ সময় কাজের ভুয়া গোলতাজ বেগম খাবার রান্না করতে এসে স্যারের অবস্থা দেখে আমাকে জানালে আমি সহ সিনিয়র অফিসার সুবির পাল স্থানীয় বাইশারী বাজারের এক পল্লী চিকিৎসককে ব্যাংকে নিয়ে তিনি তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন।
মৃত্যুর খবরটি মুহূর্তের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে শত শত লোকজন তাকে এক নজর দেখতে ব্যাংকে ভীড় জমায়।
খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন বাইশারী তদন্তকেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক এনামুল হক ভুঁইয়া। তিনি জানান ব্যাংক কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে ঘটনাস্থলেই লাশ সুরতহাল করা হয়েছে। তার ছেলে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের একজন ডাক্তার জুনিয়র কনসালটেন্ট। তার জবানবন্দিতে জানা যায় তিনি দীর্ঘদিন স্বাস কষ্ট জনিত রোগে ভুগছিলেন। তার শরিরের মধ্যে কোন ধরনের আঘাতের চিহ্ন ও পাওয়া যায়নি। তাছাড়া পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ না থাকায় নাইক্ষংছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ বরাবর আবেদনের প্রেক্ষিতে ছেলে ডাক্তার নজরুল ইসলামের নিকট ৭টা ৩০ মিনিটের সময় লাশ হস্তান্তর করে পুলিশ। এছাড়াও ঘটনা স্থলে আসেন বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আলম কোম্পানি সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ। ব্যাংকের ২য় কর্মকর্তার ছেলে ডাক্তার নজরুল ইসলাম বলেন তার বাবার মৃত্যু স্বভাবিক। তার কোন অভিযোগ নাই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •