বিখ্যাত (বা কুখ্যাত) পর্ণস্টার মিয়া খলিফার টুইটার চেক করলাম। পুরো নিউজফিড জুড়ে ইসরায়েলের কঠোর সমালোচনা করেছেন তিনি। একজন পর্ণস্টার হয়েও ফিলিস্তিনের পক্ষে নিজের দ্বিধাহীন অবস্থান তুলে ধরেছেন।
অন্যদিকে নোবেল বিজয়ী হিজাবী,পর্দানশীন মালালার টুইটার চেক করে আসেন। মিনমিন করে দুই পক্ষেকেই “ভায়োলেন্স” বন্ধ করতে বলেছেন তিনি। অর্থাৎ ইসরায়েল আর ফিলিস্তিনকে তিনি এক পাল্লায় মেপেছেন। মালালা একজন মুসলিম। একজন নোবেল লরিয়েট। তথাকথিত সভ্য দুনিয়ার মানুষ। অক্সফোর্ড গ্র্যাজুয়েট। অথচ পশ্চিমের কী নির্লজ্জ চাটুকারিতা, কী জঘন্য কুৎসিত পা চাটা মনোভাব!!
আমার কাছে একজন মানুষের মানদন্ড হলো অন্যায়ের প্রশ্নে তার অবস্থান। জুলুমের বিরুদ্ধে এবং মজলুমের পক্ষে যে থাকতে পারে না, নোবেল কেন, দুনিয়ার সব পুরস্কার জিতে এলেও আমি তারে সম্মান করি না।
ঠিক এই কারণেই মালালার চেয়ে মিয়া খলিফা আমার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। মালালার চেয়ে মিয়া খলিফা আমাদের কাছে বেশি আপন।
আমার কাছে শরীর বিক্রির ক্ষমা আছে, কিন্তু মগজ বিক্রির কোনো ক্ষমা নাই। বেশ্যাদের আমি ঘৃণা করি না, ইভেন, আমি বেশ্যাদের জানাজা পড়তেও আগ্রহী। তবে বুদ্ধিবেশ্যাদের জানাজা পড়তেও আমি আগ্রহী নই।
লেখাঃ সাদিকুর রহমান খান

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •