আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ষষ্ঠ দিনের মতো ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েলি দখলদার বাহিনী। ইসরায়েলি বাহিনী গাজার একটি শরণার্থী শিবিরেও বোমা হামলা করেছে। এতে অন্তত ১০ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন যাদের ৮ জনই শিশু।

ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় গত সোমবার থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত মোট ১৩৯ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ৯৫০ জন। নিহতদের মধ্যে অনেক শিশু ও নারীও রয়েছেন। ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

শনিবার সকালেও উদ্ধারকর্মীরা ধ্বংসস্তূপ থেকে মরদেহ উদ্ধার করেছে। ধারণা করা হচ্ছে এসব ধ্বংসস্তূপের ভেতরে আরও মরদেহ পড়ে আছে।

ইসরায়েলি বাহিনীর হামলার জবাবে গাজার সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসও রকেট ছুড়েছে। ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলের আশকেলন ও আশদোদ শহরের দিকে লক্ষ্য করে রকেট হামলা চালিয়েছে হামাস। তবে এতে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

শুক্রবার পশ্চিম তীরেও ইসরায়েলি বাহিনীর হাতে অন্তত ১৩ জন ফিলিস্তিনি নিহত ও শতাধিক আহত হয়েছেন। ফিলিস্তিনিরা ইসরায়েলি দখলদারিত্ব ও গাজায় বোমা হামলার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করে। এই বিক্ষোভে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনী ফিলিস্তিনিদের প্রতি টিয়ার গ্যাস, রাবার বুলেট ও তাজা গুলি ছোড়ে এবং ফিলিস্তিনিরা ইট-পাটকেল ও পেট্রোল বোমা ছোড়ে। এছাড়া পূর্ব জেরুজালেমেও ফিলিস্তিনি ও ইসরায়েলি পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

এখন পর্যন্ত হামাসের রকেট হামলায় ৮ জন ইসরায়েলি নিহত হয়েছেন। ইসরায়েলি বাহিনী জানিয়েছে, গাজা থেকে ইসরায়েলের বিভিন্ন অঞ্চলকে লক্ষ্য করে শত শত রকেট ছোড়া হয়েছে। তারা পূর্বাঞ্চলের দখলকৃত জায়গায় আরও বেশি সংখ্যক সেনা মোতায়েন করেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •