আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞের মধ্যেও বেঁচে গেল ‘বেহেশতি ফুল’
কথায় আছে ‘রাখে আল্লাহ, মারে কে’। যেন ঠিক তারই নজির দেখা গেল ফিলিস্তিনের একটি শরণার্থী শিবিরে। সেখানে ইসরায়েলিরা ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ চালালেও তার মধ্যেই বেঁচে গেছে ফুটফুটে একটি ফিলিস্তিনি শিশু।

আল জাজিরার খবর অনুসারে, শনিবার অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার আল-শাতি শরণার্থী শিবিরে তুমুল বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। দখলদারদের এই আক্রমণে দুই নারী ও ছয় শিশুসহ অন্তত আটজন প্রাণ হারিয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ১৫ জন।

এছাড়া ইসরায়েলি হামলায় ধসে পড়া একটি তিনতলা ভবনের ধ্বংসস্তূপের নিচে অন্তত নয়জন আটকা রয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

সাফা প্রেস এজেন্সির বরাতে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, শনিবারের ওই হামলায় এমন ভয়াবহ ধ্বংসযজ্ঞের মধ্যেই বেঁচে গেছে একটি নবজাতক।

শিশুটিকে ফুলের সঙ্গে তুলনা করে বার্তা সংস্থাটি বলেছে, শরণার্থী শিবিরের একটি বাড়িতে ইসরায়েলি হামলায় বাকিরা মারা গেলেও বেঁচে গেছে একমাত্র এই নবজাতকটিই।

متابعة صفا| الناجي الوحيد من المجزرة الإسرائيلية باستهداف منزل على رؤوس قاطنيه في مخيم الشاطئ غرب مدينة غزة، ما أدى إلى استشهاد امرأتين وخمسة أطفال pic.twitter.com/YM2bquZYJE

— وكالة صفا (@SafaPs) May 15, 2021
আল জাজিরার সবশেষ তথ্যমতে, শনিবারও গাজায় বোমাবর্ষণ অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েলি বাহিনী। এছাড়া সীমান্তে ভারী অস্ত্রশস্ত্রসহ মোতায়েন করেছে বিপুল সংখ্যক সেনা।

ফিলিস্তিনি ভূমিতে দখলদারদের হামলায় এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩৭ জন। এর মধ্যে অন্তত ৩৬টি শিশু রয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৯২০ জন নিরীহ ফিলিস্তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •