প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
কক্সবাজার শহরের লালদীঘির পাড়ে কউকের সৌন্দর্য বর্ধন স্থানে অবৈধভাবে নির্মাণকৃত স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।
১১ মে দুপুরে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের অভিযানে এসব স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।
সূত্র জানায়, লালদিঘীর পাড়ে সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে রাস্তা নির্মাণ কাজ এবং পুকুর সংস্করণ ও সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ চালু রয়েছে । চলমান লকডাউনে রাস্তা দখল করে সেখানে নির্মাণ করা হচ্ছে দোকান নির্মাণ কাজ। বিষয়টি কউক চেয়ারম্যানের নজরে আসলে তিনি সাথে সাথে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনার নির্দেশ দেন।
সূ্ত্র জানায়, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য আওয়ামী নামধারী কতিপয় ব্যক্তি রাস্তা দখল করে নির্মাণ কাজ করছে, কিন্তু কউক কর্তৃপক্ষ দখলবাজ এবং অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের বিরুদ্ধে সজাগ ও সচেতন রয়েছেন।
এ ব্যাপারে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লে.কর্ণেল ( অব.) ফোরকান আহমদ বলেন, আজ দুপুরে বাসায় যাওয়ার পথে শহরর লালদীঘির পাড়ে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ চোখে পড়ে। সাথে সাথে গাড়ি থামিয়ে তাদেরকে বলি এসব স্থাপনা নির্মাণের অনুমতি কে দিয়েছেন? উত্তরে তারা বলে, ডিসি দিয়েছেন । আমি কক্সবাজারের ডিসিকে মোবাইল ফোনে লালদীঘির পাড়ে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের কথা জিজ্ঞেস করলে তিনি এরকম কোন অনুমতি দেন নি বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন ।
পরবর্তীতে আমি অভিযান টিমকে এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে নির্দেশ প্রদান করি।
তিনি আরো বলেন, যতো দিন পর্যন্ত কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবো ততোদিন পর্যন্ত চেষ্টা অব্যাহত থাকবে এবং যত বড় শক্তিশালী হোক দখলবাজ ও অবৈধ স্থাপনার বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে । কউক কর্তৃপক্ষ অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ এবং দখলবাজদের বিরুদ্ধে সজাগ ও সতর্ক রয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •