আলমগীর মানিক,রাঙামাটি:
কাপ্তাই হ্রদের পানিতে ডুবতে থাকা মরনাপন্ন একজন মানুষকে বাঁচাতে সাংবাদিকের আহবানে সাড়াদিয়ে তাৎক্ষনিকভাবে তৎপর হয়ে এগিয়ে আসলেন কোতয়ালী থানা পুলিশ ও বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন বিএফডিসি কর্তৃপক্ষ। ত্রিমুখী তড়িৎ উদ্যোগে পানিতে ডুবে প্রায় মরতে যাওয়া ষাটোর্ব্ধ একলোককে অবশেষে উদ্ধার করা গেছে। সোমবার বিকেলে রাঙামাটি শহরের ডিসি বাংলো এলাকায় এই মানবিক ঘটনাটি ঘটে।
প্রায় চারঘন্টা মৃত্যুর সাথে যুদ্ধ করে কাপ্তাই হ্রদের পানিতে ভাসতে থাকা বাবুল নামের এই লোকটিকে অবশেষে বিএফডিসির সহযোগিতায় জীবন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করেন কোতয়ালী থানার ওসি মোঃ কবির হোসেন। উদ্ধার হওয়া লোকটি নিজের নাম বাবুল বলে জানালেও বিস্তারিত কোনো ঠিকানা দিতে পারেনি।
সোমবার বিকেলে লোকটিকে কাপ্তাই হ্রদের পানিতে ভাসতে দেখে হ্রদ তীরবর্তি বাসিন্দারা স্থানীয় সাংবাদিক আলমগীর মানিককে বিষয়টি জানায়। সাথে সাথে বিষয়টি ফায়ারসার্ভিস কর্তৃপক্ষকে জানালেও তারা এগিয়ে না আসায়, কোতয়ালী থানা ও বিএফডিসি কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়। সাথে সাথেই বিএফডিসি’র উপব্যবস্থাপক জাহিদুল ইসলাম লিখন স্প্রিড বোট নিয়ে এগিয়ে আসলে কোতয়ালী থানা পুলিশ স্প্রিডবোটটি নিয়ে ডিসি বাংলো সংলগ্ন কাপ্তাই হ্রদের মধ্যবর্তি স্থানে গিয়ে ভাসতে থাকা লোকটিকে মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে তীরে নিয়ে আসে। এসময় নিজের নাম বাবুল বলে জানালেও অন্যকোনো ঠিকানা/তথ্য দিতে পারেনি লোকটি। পরে কোতয়ালী থানার ওসি কবির হোসেন লোকটিকে নিজের গাড়িতে করে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করেন।
ওসি জানান, চিকিৎসা শেষে লোকটিকে খাবার খাইয়ে কাপড় কিনে দিলে সেগুলো নিয়ে তিনি চলে যেতে চাইলে আমরা তাকে ছেড়ে দিই। তিনি জানান, প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছে লোকটি মানসিক ভারসাম্যহীন। তবে আল্লাহর দরবারে শোকরিয়া যে, সাংবাদিক আলমগীর মানিক ভাইয়ের তথ্যানুসারে বিএফডিসি’র জাহিদ সাহেবের সহযোগিতায় আমরা একটি প্রাণ সময়মতো রক্ষা করতে পেরেছি। অন্যথায় আর কিছুক্ষণ লোকটি কাপ্তাই হ্রদের পানিতে থাকলে হয়তো তলিয়ে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হতো লোকটি।
এদিকে রাঙামাটি বিএফডিসি’র উপ ব্যবস্থাপক জাহিদুল ইসলাম লিখন জানিয়েছেন, আমি আসরের নামাজে যাবো এমন সময় সাংবাদিক আলমগীর মানিকের ফোন পেয়ে তাৎক্ষনিকভাবে আমি অফিসের স্প্রিডবোট নিয়ে মরনাপন্ন লোকটিকে উদ্ধারে এগিয়ে আসি। একজন লোককে উদ্ধার করতে পেরে নিজের মধ্যে অন্যরকম ভালোলাগা কাজ করছে বলেও জানিয়েছেন জাহিদুল ইসলাম।
এদিকে, একজন লোক মুমুর্ষ অবস্থায় কাপ্তাই হ্রদের পানিতে ডুবতে থাকার খবর দায়িত্বশীল প্রতিনিধির মাধ্যমে দমকল বাহিনীকে অবহিত করে উদ্ধারের আবেদন জানালেও রাঙামাটির ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ বিষয়টি আমলেই নেয়নি। এইধরনের খামখেয়ালীপনার ফলে হ্রদের পানিতে ডুবতে থাকা ব্যক্তিটির প্রাণহানি ঘটে যেতে পারতো এবং এর দ্বায় কে নিতো এমন মন্তব্য করে ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষের আরো দায়িত্বশীল হবার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •