সিবিএন ডেস্ক:
পশ্চিমবঙ্গে মমতা ব্যানার্জির নেতৃত্বে ৪৩ সদস্য বিশিষ্ট মন্ত্রিসভার শপথ অনুষ্ঠান চলছে কলকাতার রাজভবনে। সোমবার (১০ মে) তাদের মধ্যে ৪১ জন সশরীরে হাজির হয়ে এবং দুইজন ভার্চুয়ালি শপথ গ্রহণ করবেন বলে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে।

এ ব্যাপারে কলকাতা থেকে প্রকাশিত আনন্দবাজার পত্রিকা জানাচ্ছে, ৪৩ মন্ত্রীর তালিকা রাজভবনে জমা দিয়েছেন মমতা। এর মধ্যে পূর্ণমন্ত্রী ২৪ জন। ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী। এদের মধ্যে ১০ জন পাচ্ছেন স্বাধীন দফতর। ৪৩ জনের মধ্যে ২৭ জন পুরাতন সঙ্গে ১৬ জন নতুন মুখের দেখা মিলবে।

এর আগে, ২০১১ ও ২০১৬ সালে মুখ্যমন্ত্রী মমতার সঙ্গে শপথ নিয়েছিল তার মন্ত্রিসভা। কোভিড পরিস্থিতির কারণে বুধবার (৫ মে) একই শপথ নেন তিনি।

এদিকে, রাজভবনে কোভিডবিধি মেনেই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান হচ্ছে। সেখানে সীমিত সংখ্যক অতিথিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকা।

এবারের নির্বাচনে প্রার্থী না হলেও ফের মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে চলেছেন বিদায়ী অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। প্রত্যাশিতভাবেই মন্ত্রিসভায় জায়গা করে নিয়েছেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, অরূপ বিশ্বাস, ইন্দ্রনীল সেনের মতো মমতা ঘনিষ্ঠরা। আবার মন্ত্রিসভায় প্রত্যাবর্তন হচ্ছে মানস ভুঁইয়া, সুব্রত সাহা, সাবিনা ইয়াসমিন, বেচারাম মান্নাদের।

তবে, কে কোন দফতর পাবেন তা এখনো জানানো হয়নি। বিকেল ৩টায় নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি মন্ত্রিসভার বৈঠকে দফতর বণ্টন করে দেবেন।

মন্ত্রিসভায় নতুন মুখ বঙ্কিম হাজরা, রথীন ঘোষ, পুলক রায়, বিপ্লব মিত্র, হুমায়ুন কবীর, অখিল গিরি, রত্না দে নাগ, বুলুচিকি বরাইক, দিলীপ মণ্ডল, আকরামুজ্জামান, শিউলি সাহা, শ্রীকান্ত মাহাতো, বীরবাহা হাঁসদা, জ্যোৎস্না মান্ডি, পরেশ অধিকারী, মনোজ তিওয়ারি।

অন্যদিকে, কামারহাটি বিধানসভা আসনে জয় পেলেও তালিকায় নাম নেই রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহনমন্ত্রী মদন মিত্রের। বাদ পড়েছেন বিদায়ী মন্ত্রিসভার দুই সদস্য তাপস রায় ও নির্মল মাঝি। এছাড়াও বাদ পড়েছেন তপন দাশগুপ্ত, অসীমা পাত্র, জাকির হোসেন, মন্টুরাম পাখিরা ও গিয়াসউদ্দিন মোল্লা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •