কনক বড়ুয়াঃ
কক্সবাজারের উখিয়ায় অভিযান পরিচালনা করে ১৪০০০ পিছ ইয়াবাসহ ২ মাদক কারবারিকে আটক করেছে র‌্যাব-১৫।

আটককৃতরা হলেন উখিয়া উত্তর সোনারপাড়ার সৈয়দ হোসেনের ছেলে কফিল উদ্দিন (২৬) ও কুতুপালং ২ নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ব্লক ডি/৫ এর মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে কামাল হোসেন(৩৬)।

শুক্রবার (৭ মে) দুপুর ১২ টা ৩০ মিনিটের দিকে উখিয়ার উত্তর সোনারপাড়া নুরুল কাদেরের স্ত্রী ইয়াছমিন আক্তারের বসতঘরে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

তথ্য সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার (৭ মে) দুপুর ১২ টা ৩০ মিনিটে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কতিপয় মাদক কারবারি কক্সবাজারের উখিয়ার উত্তর সোনারপাড়া নুরুল কাদেরের স্ত্রী ইয়াছমিন আক্তারের বসতঘরের পার্শ্বকক্ষে ইয়াবা ট্যাবলেট ক্রয় বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৫ এর একটি চৌকশ অভিযানিক দল উপরোক্ত বসতঘরের সামনে অবস্থান নেয়। পরে র‌্যাব সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়ে কতিপয় মাদক কারবারি পালিয়ে যাওয়ার প্রাক্কালে কুতুপালং ২ নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ব্লক ডি/৫ এর মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে কামাল হোসেন(৩৬) ও উখিয়া উত্তর সোনারপাড়ার সৈয়দ হোসেনের ছেলে কফিল উদ্দিন (২৬) কে আটক করতে সক্ষম হয় এবং তাদের সহযোগী উত্তর সোনারপাড়ার নুরুল কাদেরের স্ত্রী ইয়াছমিন আক্তার পালিয়ে যায়।

ঐসময় উপস্থিত স্বাক্ষীদের সম্মুখে ধৃত আসামীদের দেখানো মতে বসতঘরের পার্শ্বকক্ষের খাটের উপর থাকা একটি শপিং ব্যাগ তল্লাশী করে ১৪০০০ পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামীরা স্বীকার করে যে, পলাতক আসামীর সহযোগিতায় তারা দীর্ঘদিন যাবৎ টেকনাফের সীমান্তবর্তী এলাকা হতে ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিক্রি করে আসছে।

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া এন্ড অপারেশন) সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ মোঃ শেখ সাদী জানান, আটককৃত আসামীদের পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। পলাতক আসামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •