নিজস্ব প্রতিবেদক
পেকুয়ায় জয়নাল হত্যা মামলায় নিরহ ব্যক্তি ও দলীয় নেতাকর্মীদের আসামী করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। বৃহস্পতিবার (০৬ মে) বিকালে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এড. ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান, সহ—সভাপতি রেজাউল করিম।
সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, গত ৩ মে পেকুয়ায় জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে হত্যা করা হয় যুবদল নেতা জয়নালকে। এই হত্যা মামলায় উদ্দেশ্যমূলকভাবে নিরহ ব্যক্তি, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের আসামী করা হয়েছে। অবিলম্বে এই হত্যাকান্ডে নিরহ কোন ব্যক্তি ও দলীয় নেতাকর্মীদের মামলা দিয়ে হয়রানী না করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি আহবান জানানো হয়। পাশাপাশি তদন্ত সাপেক্ষে এই জঘন্য হত্যাকান্ডের সাথে যারা জড়িত রয়েছে তাদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি দাবি করেন নেতৃবৃন্দ।
সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, মূলতঃ যুদ্ধাপরাধের দায়ে ফাঁসিরদন্ডপ্রাপ্ত আসামী জামায়াত নেতা মীর কাশেম আলীর দেহরক্ষী মগনামার চেয়ারম্যান ওয়াসিম এই ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। সে চাই পেকুয়া থেকে আওয়ামী লীগ নিশ্চিহ্ন হয়ে যাক। কিন্তু তার এই ষড়যন্ত্র কোনভাবে সফল হতে দেবে না জেলা আওয়ামী লীগ। জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ সরেজমিনে গিয়ে এই ঘটনা তদন্ত করবে।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের অর্থ সম্পাদক আবদুল খালেক, এড. তাপস রক্ষিত, এটিএম জিয়া উদ্দিন চৌধুরী জিয়া, খালেদ মাহমুদ মিথুন, জিএম কাশেম মিজানুর রহমান, এম,এ মনজুরসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •