সিবিএন ডেস্ক:
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও ৪১ জন। গত ৫ সপ্তাহের মধ্যে এটিই সর্বনিম্ন মৃত্যু। এর আগে ৩০ মার্চ ৪৫ জনের মৃত্যুর খবর জানায় স্বাস্থ্য অধিদফতর। আজকের ৪১ জন নিয়ে দেশে সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত করোনায় মারা গেলেন ১১ হাজার ৭৯৬ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৮২২ জন। এদের নিয়ে এখন পর্যন্ত শনাক্ত হলেন সাত লাখ ৬৯ হাজার ১৬০ জন। একই সময়ে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন তিন হাজার ৬৯৮ জন। এ নিয়ে দেশে করোনা থেকে সুস্থ হলেন সাত লাখ দুই হাজার ১৬৩ জন।

বিজ্ঞাপন
গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার আট দশমিক ৪৪ শতাংশ এবং এখন পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭৮ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯১ দশমিক ২৯ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার এক দশমিক ৫৩ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন
বৃহস্পতিবার (৬ মে) স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ২১ হাজার ৮২২টি, আর নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২১ হাজার ৫৮৫টি। দেশে এখন পর্যন্ত করোনার মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৫৫ লাখ ৮২ হাজার ২৬৩টি। এরমধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা করা হয়েছে ৪১ লাখ ছয় হাজার ৭২৫টি এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১৪ লাখ ৭৫ হাজার ৫৩৮টি।

দেশে বর্তমানে ৪২৮টি পরীক্ষাগারে করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে জানিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, এরমধ্যে আরটি-পিসিআরের মাধ্যমে পরীক্ষা করা হচ্ছে ১২৭টি পরীক্ষাগারে, জিন এক্সপার্ট মেশিনের মাধ্যমে পরীক্ষা করা হচ্ছে ৩৫টি পরীক্ষাগারে এবং র‌্যাপিড অ্যান্টিজেনের মাধ্যমে পরীক্ষা করা হচ্ছে ২৬৬টি পরীক্ষাগারে।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৪১ জনের মধ্যে পুরুষ ২২ জন, আর নারী ১৯ জন। এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে পুরুষ মারা গেছেন আট হাজার ৫৬৬ জন এবং নারী তিন হাজার ২৩০ জন।

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে বয়স বিবেচনায় ষাটোর্ধ্ব রয়েছেন ২৪ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৫ জন এবং ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে আছেন দুই জন।

এদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের আছেন ২০, চট্টগ্রাম বিভাগের ১৪ জন, রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের দুই জন করে এবং খুলনা বিভাগের একজন।

৪১ জনের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ২৬ জন, বেসরকারি হাসপাতালে ১৪ জন এবং বাড়িতে একজন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •