সিবিএন ডেস্ক:
করোনাভাইরাসে দৈনিক শনাক্ত ও মৃত্যুর নতুন রেকর্ড করেছে ভারত। ৬ মে বৃহস্পতিবার সকালে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও চার লাখ ১২ হাজার ২৬২ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এক দিনে এতো বেশি শনাক্তের ঘটনা এখন পর্যন্ত এটাই সর্বোচ্চ।

১ মে দেশে দৈনিক সংক্রমণ প্রথমবারের জন্য চার লাখ ছাড়িয়েছিল। তার পর চার দিন সাড়ে তিন লাখের বেশি থাকলেও চার লাখের নিচেই ছিল নতুন শনাক্তের সংখ্যা।

সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ভারতে সরকারি হিসাবেই এখন পর্যন্ত দুই কোটি ১০ লাখ ৭৭ হাজার ৪১০ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। যদিও আক্রান্তের প্রকৃত সংখ্যা আরও অনেক বেশি বলে প্রতীয়মান হচ্ছে।

করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ দৈনিক আক্রান্তের পাশাপাশি বাড়িয়েছে দৈনিক মৃতের সংখ্যাও। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে তিন হাজার ৯৮০ জনের। একদিনে মৃত্যুর নিরিখে এই সংখ্যা ভারতে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ। গত ৯ দিন ধরে দৈনিক মৃত্যু তিন হাজারের বেশি থাকছে। এভাবে বাড়তে বাড়তে সরকারি হিসাবেই মোট মৃতের সংখ্যা ২ লাখ ৩০ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। যদিও মৃতের প্রকৃত সংখ্যা লুকানোর জোরালো অভিযোগ রয়েছে।

বিশ্বে প্রতিদিন যত মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন করোনাভাইরাসে তার প্রায় অর্ধেকই এখন হচ্ছে ভারতে। বিপুল সংখ্যক নতুন আক্রান্ত রোজ বাড়াচ্ছে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৯ হাজার ১৬৯ জন বেড়ে দেশে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৩৫ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এই পরিস্থিতিতে কোভিডের টিকাদান কর্মসূচিও চলছে। কিন্তু গত এক সপ্তাহে টিকা পেয়েছে খুব কম সংখ্যক মানুষ। যদিও গত ২৪ ঘণ্টায় এই সংখ্যাটা কিছুটা বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ২০ লাখ ১৯ হাজার ১৫১ জন টিকা পেয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে ১৬ কোটি ২৫ লাখেরও বেশি।

এদিকে বিদ্যমান করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নিজ রাজ্য গুজরাটের বালিয়াদেভ মন্দিরে পূজা দিতে জড়ো হয়েছে হাজার হাজার মানুষ। গত ৪ মে রাজ্যের আহমেদাবাদ জেলার সানন্দ গ্রামের ওই মন্দিরটিতে সমবেত হন তারা। নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে জমায়েত করায় ২৩ জনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন জেলার সিনিয়র পুলিশ কর্মকর্তা কেটি কামারিয়া।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •