অনলাইন ডেস্ক: হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কমিটির প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া নোমান ফয়জীকে আজ বুধবার বিকেলে কক্সবাজারের চকরিয়া থেকে গ্রেপ্তার করেছে চট্টগ্রাম জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। তিনি হাটহাজারীর মেখল হামিউছ ছুন্নাহ মাদ্রাসার শিক্ষক।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার এস এম রশিদুল হক আজ বিকেলে বলেন, হেফাজত নেতা জাকারিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। হাটহাজারীতে সহিংসতার ঘটনায় ইন্ধনদাতা হিসেবে তাঁর নাম রয়েছে। এ ছাড়া হেফাজতের সাবেক আমির আহমদ শফীকে হত্যার অভিযোগে করা মামলায় পিবিআইর তদন্তেও তাঁর নাম রয়েছে। জাকারিয়াকে চট্টগ্রামে নিয়ে আসা হচ্ছে।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদ্রাসার শিক্ষক ও হেফাজত মহাসচিব নুরুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি দল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর বাসভবনে সাক্ষাৎ করেন। ওই সময় তাঁরা গ্রেপ্তার নেতা–কর্মীদের মুক্তি, ধরপাকড় বন্ধসহ চার দফা লিখিত দাবি দেন মন্ত্রীকে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরবিরোধী কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে গত ২৬ মার্চ ঢাকার বায়তুল মোকাররম মসজিদ এলাকায় সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনার জেরে ওই দিনই চট্টগ্রামের হাটহাজারী ও পটিয়ায় সহিংসতার ঘটনা ঘটে। হাটহাজারীতে পুলিশের সঙ্গে হেফাজতে ইসলামের কর্মীদের সংঘর্ষে চারজন নিহত হন।

সে সময় পটিয়া ও হাটহাজারী থানায় হামলা, ভূমি কার্যালয়ে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে পৃথক সাতটি মামলা হয়। এসব মামলায় ৪ হাজার ৩০০ জনকে আসামি করা হয়।

পরে গত ২২ এপ্রিল হেফাজতের নেতা-কর্মীদের আসামি করে পৃথক তিনটি মামলা করে হাটহাজারী থানা-পুলিশ। এর মধ্যে দুই মামলায় হেফাজতের বিলুপ্ত কমিটির আমির জুনায়েদ বাবুনগরীকে আসামি করা হয়। তিন মামলায় আসামি করা হয় তিন হাজার জনকে। এর মধ্যে ১৪৮ জনের নাম উল্লেখ করা হয়।
– প্রথম আলো

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •