ডেস্ক রিপোর্ট:
আজ ৫ মে, কক্সবাজারের কৃতি সন্তান, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক নবযুগ পত্রিকার সম্পাদক এবং প্রকাশক শাহাব উদ্দিন সাগর এর জন্মদিন। আজকের এই দিনে তিনি কক্সাবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার প্রমত্ত মাতামুহুরীরকূলের ইলিশিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার শৈশব ও কৈশোর কেটেছে চকরিয়া এবং কক্সাবাজারে। ৯০ দশকের মাঝামাঝি সময়ে তিনি সাংবাদিকতা শুরু করেন। ছোট বেলা থেকে সাংবাদিকতার প্রতি জোঁক তাকে আজকের এই পর্যন্ত নিয়ে এসেছে। মফস্বল শহরের খ্যাতি অর্জন করে তিনি পর্যটন নগরী কক্সবাজরেরও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় অন্যরকম সাংবাদিকতার বীজ বুনেছিলেন। জেলা শহর থেকে তিনি জয় করেন ঢাকার সাংবাদিকতাকেও। তিনি ঢাকায় যায়যায়দিন, মানবকন্ঠ, অর্থনীতি প্রতিদিনের কূটনৈতিক রিপোর্টার ছিলেন। ২০১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি দেয়ার পর তিনি টাইম টেলিভিশন, বাংলা পত্রিকার নিউজ কনসালটেন্ট এবং পরবর্তীতে তিনি বাংলাওয়াল্ড টুয়েন্টিফোর ডটকমের নির্বাহী সম্পাদক ছিলেন। এর পর নিজেই মুক্তিযুদ্ধের চেনতাকে প্রবাসের বুকে ছড়িয়ে দিতে মুক্তিবার্তা টুয়েন্টিফোর নামে অনলাইন পোর্টাল চালু করেন। পরে তিনি প্রথম আলোর ডেপুটি ব্যুরো চীফ হিসেবে যোগ দেন এবং প্রথম আলো উত্তর আমেরিকার যাত্রা শুরুতে মূখ্য ভূমিকা পালন করেন। ২০১৭ সালে প্রথম আলো ছেড়ে তিনি যোদ দেন নিউইয়র্কের প্রভাবশালী সাপ্তাহিক পত্রিকা আজকালে। তিনি ২০১৯ সালের নভেম্বর পর্যন্ত পত্রিকাটির নির্বাহী সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ২০২০ সালে একশো বছরের পুরনো পত্রিকা-শেরে বাংলা একে ফজলুল হক ও কবি কাজী নজরুল ইসলাম সম্পাদিত নবযুগ পত্রিকার নামে নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশ করেন সাপ্তাহিক নবযুগ। ২০২০ সালে করোনা মহামারীতে নিউইয়র্ক যখন বিপর্যস্ত তখনই একমাত্র বাংলা সংবাদপত্র হিসেবে শাহাব উদ্দিন সাগর সম্পাদিক সাপ্তাহিক নবযুগ প্রকাশনা অব্যাহত রেখে বাংলাদেশি কমিউনিটির পাশে ছিল। এছাড়া ওই সময়ে তিনি এবং তার সহধর্মী বাংলাদেশ ও প্রবাসের জনপ্রিয় উপস্থাপিকা শামসুন নাহার নিম্মির নিত্যদিনকার ফেসবুক লাইভ ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছিল। পাশাপাশি ঝুঁকি নিয়ে প্রকাশিত সাপ্তাহিক নবযুগ ওই সময় বাংলাদেশি কমিউনিটিতে ‘অক্সিজেন’ হিসেবে কাজ করেছে বলে অনেকেই মন্তব্য করেছেন।

বাবার জন্মদিনে ছেলের আয়োজন…সকালে স্কুল তাই ১২ টা ১ মিনিট হওয়ার আগেই ফটোশুট রাত ৯ টায় করে ফেলেছে। নিজেই বলল মা চলো ছোট্ট একটা কেক নিয়ে আসি। তারপর ছবি তুলে ঘুমাতে গেলো। বলল মা ১২ টায় কিন্তু আব্বুজানকে ফেসবুকে সব দিয়ে দিও….আমি সকালে দেখবো..সত্যিই ছেলেটা দেখতে দেখতে বড় হয়ে যাচ্ছে। আল্লাহ তোমাকে অনেক বড় করুক বাবা। –Shamsun Nahar Nimme

প্রতিভাবান সাংবাদিক ও কক্সাবাজারের তরুণ সাংবাদিকদের অনূকরণীয় শাহাব উদ্দিন সাগর স্থানীয় পত্রিকাগুলোতে দাপটের সঙ্গে কাজ করেছেন এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো আজকের দেশ বিদেশ, দৈনিক চকোরী ও সাপ্তাহিক মাতামুহুরী। এর মধ্যে তিনি দৈনিক চকোরী ও সাপ্তাহিক মাতামুহুরীর বার্তা সম্পাদক ছিলেন। তিনি কাজ করেছেন দৈনিক আজাদী, দৈনিক আজকের কাগজ ও এনটিভির মতো প্রতিষ্ঠানেও।
শাহাব উদ্দিন সাগর ঢাকার প্রেস্টিজিয়ার্স সাংবাদিক সংগঠন বা কূটনৈতিক সংবাদদাতাদের সংগঠন ডিক্যাব এর কার্যনির্বাহী সদস্য ও ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটি এবং ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সক্রিয় সদস্য ছিলেন। তিনি আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।
শাহাব উদ্দিন সাগর এর রয়েছে দুটি বই রয়েছে। যেগুলো ২০০৫ সালে প্রকাশিত হয়। এর মধ্যে চোখে দেখা চকরিয়া এবং আশা নৈরাশ্যের সঞ্চয় উল্লেখযোগ্য। চোখে দেখা চকরিয়া বইটি থেকে এখনো স্থানীয় বৃত্তি পরীক্ষার প্রশ্ন পত্র করা হয়ে থাকে এবং এটিকে একট গবেষণাধর্মী বই হিসেবে উল্লেখ করা হয়। এছাড়া তার উপজেলার ইতিহাস ঐতিহ্যের নামে প্রকাশিত ‘চকরিয়ার ইতিহাস’ গ্রন্থ প্রকাশে তার অবদান রয়েছে।
শাহাব উদ্দিন সাগর ইলিশিয়া জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, আলহাজ¦ মোস্তাফিজুর রহমান কলেজ থেকে এইচএসসি এবং জাতীয় বিশ^বিদ্যালয় থেকে ¯œাকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন।
তিনি বেশ কয়েকটি সার্ক সম্মেলন এবং জাতিসংঘ অধিবেশনসহ বহু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কভার করেছেন।
শাহাব উদ্দিন সাগরের স্ত্রী শামসুন নাহার নিম্মি বাংলাদেশের এনটিভির সিনিয়র নিউজ প্রেজেন্টার ছিলেন এবং বর্তমানে উত্তর আমেরিকায় স্বনামধন্য অনুষ্ঠান ও সংবাদ উপস্থাপিকা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •