সিবিএন ডেস্ক:
রাজধানীর পল্টনে অবস্থিত চায়না টাউন মার্কেট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি আজ মঙ্গলবার (৪ মে) সকালে স্বাস্থ্যবিধি না মানার অভিযোগে মার্কেটটি বন্ধ করে দেয়। মাস্ক নিশ্চিত না করলে মার্কেট বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে আগেই সতর্ক করে দেওয়া হয়েছিল বলে জানান মালিক সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দিন। তিনি বলেন, অন্য কোনও মার্কেটও যদি স্বাস্থ্যবিধি না মানে, সেগুলোও বন্ধ করে দেওয়া হবে।

চায়না টাউন মার্কেট বন্ধ করে দেওয়ার কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, মার্কেটে আসা অধিকাংশ মানুষের মুখে মাস্ক ছিল না। এমনকি দোকানদারদের মুখেও মাস্ক ছিল না। মার্কেটের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ছিল না। ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’ লেখা ব্যানার ছিল না।

ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের সমন্বয়ে আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে বিভিন্ন মার্কেটে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে অভিযান অব্যাহত আছে। চায়না টাউন মার্কেট যে স্বাস্থ্যবিধি মানছে না তার নানাভাবে গণমাধ্যমে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। পরে ওই মার্কেটে গিয়ে স্বাস্থ্যবিধি না মানার সত্যতা মেলে।

দোকান মালিক সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দিন বলেন, ‘আমরা সবসময় চেয়েছি মার্কেট খুলে দিতে। তবে মার্কেট খোলার আগে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করার শর্ত দেওয়া ছিল। যদি সেটা করতে পারে, তাহলে আজকেই মার্কেট খুলে দেওয়া হবে। আমরা একে একে অন্য মার্কেটেও যাব। চায়না টাউন মার্কেট বন্ধ করে সব মার্কেটকে কঠোর বার্তা দেওয়া হলো। আমরা যা বলেছি তা করবো।’

এর আগে গতকাল জনপ্রশাসনমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, মঙ্গলবার থেকে নো মাস্ক নো সার্ভিস। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •